18

করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য গোটা বিশ্বই প্রতিষেধকের অপেক্ষায় প্রহর গুণছে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত প্রতিষেধক হাতে পেতে আরও সময় লাগবে বলেও জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। 
 

Subscribe to get breaking news alerts

28

গোটা বিশ্ব জুড়ে করোনাভাইরাসের জাবাণু দাপট দেখালেও এখনও পর্যন্ত এই রোগের চিকিৎসার জন্য নির্দিষ্ট কোনও ওষুধ নেই। প্রাথমিভাবে দেখা গেছে হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের নিরাময়ের জন্য  মূলত রেমদেসিভির ব্যবহার করা হয়। এই ওষুধটি ব্যবহার করা হয় ইবলা রোগীদের জন্য। 

38

 নতুন একটি গবেষণায় দেখা গেছে করোমা ভাইরাস মোকাবিলায় রীতিমত উপকারী নাইট্রিক অক্সাইড। এটি সেল সিগনালিং অনু। যা মানুষের শরীরে প্রাকৃতিকভাবেই উৎপন্ন হয়। আর এটি করোনাভাইরাসের সম্ভাব্য চিকিৎসা হতে পারে। 
 

48

নাইট্রিক অক্সাইড হল নাইট্রোজেনের একটি অক্সাইড। এটি একটি ভাসোডিলিটর। যা রক্তের প্রবাহকে বাড়াতে সক্ষম। 

58

নাইট্রিক অক্সাইডের অ্যান্টিভাইরাল বৈশিষ্ঠ রয়েছে। সুইডেন পরিচালিত একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে নাইট্রিক অক্সাইড, সার্স কোভ-২এর প্রতিরূপ প্রতিরোধ করে। বিজ্ঞানীর বানরের কোষের ব্য়বহার করে ইন-ভিট্রো খুঁজে বার করা চেষ্টা করেছেন। 

68

বিজ্ঞানীরা দেখতে পান যে নাইট্রিক অক্সাইডে প্রোথেস নামের একটি মূল এনজাইমকে বাধা দেয়। আর এই প্রোথেসই করোনাভাইরাসের অনুলিপি তৈরি করতে সহযোগিতা করে। 

78

এরপরই বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন নাইট্রিক অক্সাইডের গ্যাস করোনা রোগীদের পক্ষে উপকারী। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন তাঁরা এটির ক্লিনিক্যাল পরীক্ষার জন্য আবেদন করার তথা চিন্তা করছেন। 

88

 পরীক্ষায় দেখা গেছে নাইট্রিক অক্সাইড কম সংশ্লেষে শ্বাসকষ্টে ভোগা রোগীদের রক্তে অক্সিজেনের উন্নতি করতে পারে। আর করোনার মূল লক্ষণই হল সংক্রমিতের শ্বাসকষ্ট থাকবে। আর অক্সিজেনের মাত্রা কমে যেতে পারে। .