ট্রাম্পের ছায়াসঙ্গী একটি 'ফুটবল' ও একটি বিস্কুট, মুহূর্তে ধ্বংস হতে পারে পৃথিবী

First Published 20, Feb 2020, 6:52 PM IST

২৪ ফেব্রুয়ারি দু'দিনের ভারত সফরে আসছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং তাঁর স্ত্রী মেলানিয়া ট্রাম্প। গুজরাটের আহমেদাবাদ থেকে তার সফর শুরু হবে। সফর চলাকালীন আমেরিকার প্রেসিডেন্টের সঙ্গে থাকবে একটি বিশেষ 'ফুটবল' এবং একটি বিশেষ 'বিস্কুট'-ও। ভারত বলে নয় যে কোনও সফরেই তার ছায়াসঙ্গী হয় এই 'ফুটবল' ও 'বিস্কুট'। এই দুটি আসলে একটি তালা আর চাবির মতো, খুলতে পারলে, ধ্বংস হতে পারে পুরো পৃথিবী। জেনে নেওয়া যাক এই মহার্ঘ ফুটবল আর বিস্কুট সম্পর্কে -

 

বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী ব্রিফকেস -  ফুটবল বলা হলেও এটি আদতে একটি ব্রিফকেস। শূকরের চামড়া দিয়ে তৈরি এই অত্যন্ত গোপনীয় ব্রিফকেসটিতে মার্কিন পরমাণু বোমা হামলার লঞ্চ কোড সহ মোট ৪ টি গুরুত্বপূর্ণ জিনিস থাকে। তাই এই ব্রিফকেসকে পারমাণবিক ফুটবল বলা হয়। লঞ্চ কোড ছাড়া ব্রিফকেসে থাকে দুটি কালো বই ও একটি উপগ্রহ যোগাযোগ ব্যবস্থা, যা বিপদে আপদে তৎক্ষণাত বিশ্বের যে কোনও জায়গার সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্টের কথা বলতে পারেন। একটি কালো বইয়ে মার্কিন পরমাণু হামলার সম্পূর্ণ পরিকল্পনা এবং লক্ষ্য সম্পর্কিত তথ্য লেখা আছে। অন্যটিতে রয়েছে হামলা হলে গা ঢাকা দেওয়া সংক্রান্ত সম্পূর্ণ তথ্য।

বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী ব্রিফকেস - ফুটবল বলা হলেও এটি আদতে একটি ব্রিফকেস। শূকরের চামড়া দিয়ে তৈরি এই অত্যন্ত গোপনীয় ব্রিফকেসটিতে মার্কিন পরমাণু বোমা হামলার লঞ্চ কোড সহ মোট ৪ টি গুরুত্বপূর্ণ জিনিস থাকে। তাই এই ব্রিফকেসকে পারমাণবিক ফুটবল বলা হয়। লঞ্চ কোড ছাড়া ব্রিফকেসে থাকে দুটি কালো বই ও একটি উপগ্রহ যোগাযোগ ব্যবস্থা, যা বিপদে আপদে তৎক্ষণাত বিশ্বের যে কোনও জায়গার সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্টের কথা বলতে পারেন। একটি কালো বইয়ে মার্কিন পরমাণু হামলার সম্পূর্ণ পরিকল্পনা এবং লক্ষ্য সম্পর্কিত তথ্য লেখা আছে। অন্যটিতে রয়েছে হামলা হলে গা ঢাকা দেওয়া সংক্রান্ত সম্পূর্ণ তথ্য।

ট্রাম্পের পকেটে সবসময় থাকে 'বিস্কুট' -  পারমাণবিক ফুটবলেরই অংশ ৩ থেকে ৫ ইঞ্চি লম্বা একটি কার্ড, যা পারমাণবিক বোমা হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে। ক্রেডিট কার্ড-এর মতো দেখতে এই কার্ডটিরই পোশাকি নাম 'বিস্কুট'। এই বিস্কুটে ৫টি অ্যালার্ম থাকে, যেগুলি এটি হারিয়ে গেলে বাজানো যেতে পারে। এই বিস্কুটেই মার্কিন প্রেসিডেন্টের জন্য প্রতিদিন বিশেষ কোড পাঠানো হয়। যা পরমাণু হামলার নির্দেশের সময় তাঁকে জানাতে হয় অপারেটর-কে। এই কোড না দিতে পারলে পরমাণু হামলা থমকে যায়। এটি মার্কিন প্রেসিডেন্টের পকেটেই থাকে সবসময়। বেশ কয়েকবার এই বিস্কুট হারিয়ে গেলেও, কোনও কারাপ হাতে তা এখনও পড়েনি।

ট্রাম্পের পকেটে সবসময় থাকে 'বিস্কুট' - পারমাণবিক ফুটবলেরই অংশ ৩ থেকে ৫ ইঞ্চি লম্বা একটি কার্ড, যা পারমাণবিক বোমা হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে। ক্রেডিট কার্ড-এর মতো দেখতে এই কার্ডটিরই পোশাকি নাম 'বিস্কুট'। এই বিস্কুটে ৫টি অ্যালার্ম থাকে, যেগুলি এটি হারিয়ে গেলে বাজানো যেতে পারে। এই বিস্কুটেই মার্কিন প্রেসিডেন্টের জন্য প্রতিদিন বিশেষ কোড পাঠানো হয়। যা পরমাণু হামলার নির্দেশের সময় তাঁকে জানাতে হয় অপারেটর-কে। এই কোড না দিতে পারলে পরমাণু হামলা থমকে যায়। এটি মার্কিন প্রেসিডেন্টের পকেটেই থাকে সবসময়। বেশ কয়েকবার এই বিস্কুট হারিয়ে গেলেও, কোনও কারাপ হাতে তা এখনও পড়েনি।

পারমাণবিক ফুটবলের ইতিহাস -  ১৯৬৩ সালের ১০ মে এই ব্রিফকেসের ছবিটি প্রথম প্রকাশ্যে আসে। মনে করা হয়,  ১৯৬২ সালে কিউবা সঙ্গে ক্ষেপণাস্ত্র সঙ্কটের পর থেকেই পরমাণু ফুটবল নামে পরিচিত এই ব্রিফকেস সবসময় মার্কিন প্রেসিডেন্টের সঙ্গে রাখা শুরু হয়েছিল। এই ব্রিফকেস-এর কথা জানাজানি হয়ে যাওয়ার পর থেকে মার্কিন প্রেসিডেন্টের সঙ্গে অবিকল একরকম দেখতে বেশ কয়েকটি ব্রিফকেস রাখা হয়।

পারমাণবিক ফুটবলের ইতিহাস - ১৯৬৩ সালের ১০ মে এই ব্রিফকেসের ছবিটি প্রথম প্রকাশ্যে আসে। মনে করা হয়, ১৯৬২ সালে কিউবা সঙ্গে ক্ষেপণাস্ত্র সঙ্কটের পর থেকেই পরমাণু ফুটবল নামে পরিচিত এই ব্রিফকেস সবসময় মার্কিন প্রেসিডেন্টের সঙ্গে রাখা শুরু হয়েছিল। এই ব্রিফকেস-এর কথা জানাজানি হয়ে যাওয়ার পর থেকে মার্কিন প্রেসিডেন্টের সঙ্গে অবিকল একরকম দেখতে বেশ কয়েকটি ব্রিফকেস রাখা হয়।

কার হাতে থাকে 'ফুটবল'?  মার্কিন প্রেসিডেন্ট নিজে অবশ্য এই ব্রিফকেস বহন করেন না। তাঁর সঙ্গে সবসময় ৫জন সামরিক সহকার থাকেন। এই পাঁচজনের মধ্যে একজনের কাছেই তাকে পারমাণবিক ফুটবল। তিনি সর্বদা সশস্ত্র থাকেন। কেউ তার কাছ থেকে ব্যাগটি ছিনিয়ে নিতে চেষ্টা করলে তিনি পাল্টা আক্রমণের রাস্তায় যাবেন।

কার হাতে থাকে 'ফুটবল'? মার্কিন প্রেসিডেন্ট নিজে অবশ্য এই ব্রিফকেস বহন করেন না। তাঁর সঙ্গে সবসময় ৫জন সামরিক সহকার থাকেন। এই পাঁচজনের মধ্যে একজনের কাছেই তাকে পারমাণবিক ফুটবল। তিনি সর্বদা সশস্ত্র থাকেন। কেউ তার কাছ থেকে ব্যাগটি ছিনিয়ে নিতে চেষ্টা করলে তিনি পাল্টা আক্রমণের রাস্তায় যাবেন।

ফুটবলের নিয়ন্ত্রণে ৬০০০ পারমাণবিক বোমা -  একেবারে সঠিক না হলেও বিভিন্ন সামরিক বিশেষজ্ঞের অনুমান অনুযায়ী, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হাতে প্রায় ৬,১৮৫টি পারমাণবিক বোমা রয়েছে। যা সমগ্র বিশ্বকে একবার নয়, বেশ কয়েকবার ধ্বংস করতে সক্ষম। এর মধ্যে ১৩৬৫ টি বিভিন্ন বোমারু বিমান, ভূমি থেকে ভূমি ক্ষেপণাস্ত্র এবং পারমাণবিক সাবমেরিনে মোতায়েন করা হয়েছে। মার্কিন রাষ্ট্রপতি পারমাণবিক হামলার অনুমোদন দিলে হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তা কার্যকর করার চেষ্টা করা হবে।

ফুটবলের নিয়ন্ত্রণে ৬০০০ পারমাণবিক বোমা - একেবারে সঠিক না হলেও বিভিন্ন সামরিক বিশেষজ্ঞের অনুমান অনুযায়ী, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হাতে প্রায় ৬,১৮৫টি পারমাণবিক বোমা রয়েছে। যা সমগ্র বিশ্বকে একবার নয়, বেশ কয়েকবার ধ্বংস করতে সক্ষম। এর মধ্যে ১৩৬৫ টি বিভিন্ন বোমারু বিমান, ভূমি থেকে ভূমি ক্ষেপণাস্ত্র এবং পারমাণবিক সাবমেরিনে মোতায়েন করা হয়েছে। মার্কিন রাষ্ট্রপতি পারমাণবিক হামলার অনুমোদন দিলে হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তা কার্যকর করার চেষ্টা করা হবে।

loader