112


২৬ সেপ্টেম্বর জোড়া ঘূর্ণাবর্তে প্রবল বর্ষণে ভাসতে চলেছে দক্ষিণবঙ্গ। কারণ বঙ্গোপসাগরের উপরে নতুন করে ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। (Cyclone Gulab) গুলাব নামের এই ঘূর্ণঝড়ের নামকরণ করেছে পাকিস্থান (Pakistan)। রবিবার আগামী ২৪ ঘন্টায় উপকূলে আছড়ে পড়ার প্রবল সম্ভবনা তৈরি হয়েছে। এর প্রভাবে উপকূল এলাকায় ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভবনা দেখা দিয়েছে। 

Subscribe to get breaking news alerts

212

মূলত শহরের আকাশ মেঘলা (Cloudy)এবং  একশো ছুঁইছুঁই আদ্রতা (Humidity) হওয়ার কারণেই অস্বস্তি চরমে পৌছেছে। এদিকে বৃষ্টির জল এখনও জমে বহু এলাকায়। জমা জলে আশঙ্কা বাড়ছে অজানা জ্বর (Unknown Fever) এবং ডেঙ্গু (Dengue) সহ নানা রোগের। তবে কলকাতা ছেড়ে দক্ষিণবঙ্গে (South Bengal) বেরোলেই ভয়াবহ অবস্থা। বৃষ্টি জলের তোড়ে নদী জলে বেড়ে ভাসিয়ে দিয়েছে একাধিক গ্রাম। এহেন পরিস্থিতিতে ফের নিম্নচাপের জেরে প্রবল বর্ষণের সতর্কতা জারি করল আলিপুর আবহাওয়া দফতর  (Alipore Weather Report)।  

312

 আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগরের উপরে  সুস্পষ্ট নিম্নচাপ রয়েছে। সেটি আরো শক্তিশালী হয়ে একই জায়গায় অবস্থান করছে। এটি ধীরে ধীরে উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হবে। 
 

412

হাওয়া অফিস জানিয়েছে, আগামী ১২ ঘন্টায় নিম্নচাপটি আরও শক্তি বাড়াবে। ধীরে ধীরে উড়িষ্যা উপকূলের দিকে যাবে। পাশাপাশি আরেকটি ঘূর্ণাবর্ত ২৬  সেপ্টেম্বর পূর্ব মধ্য বঙ্গোপসাগরে তৈরি হবে এবং এটার অভিমুখ উত্তর বঙ্গোপসাগরে দিকে থাকবে। 
 

512

 আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, এর ফলে ২৬ ও ২৭ তারিখ দক্ষিণবঙ্গের সব জায়গাতেই হালকা বৃষ্টি হবে। ২৮ সেপ্টেম্বর  বৃষ্টির পরিমাণ বাড়বে এবং দক্ষিণবঙ্গের সব জেলাতেই বৃষ্টি হবে।
 

612

 আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, ২৬  সেপ্টেম্বর শুধুমাত্র পূর্ব মেদিনীপুরের ভারী বৃষ্টি হবে এবং বাকি জেলাতে হালকা বৃষ্টি হবে। ২৭ সেপ্টেম্বর  দুই মেদিনীপুর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ভারী বৃষ্টি হবে। 
 

712


 আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, ২৪ তারিখ দুই মেদিনীপুর, দুই ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলি, কলকাতা, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া,ঝাড়গ্রামে ভারী বৃষ্টি হবে। 

812

হাওয়া অফিস জানিয়েছে,  নিম্নচাপটি যেহেতু সমুদ্রের উপরে রয়েছে তাই ২৫ তারিখ থেকে মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে বারণ করা হয়েছে। ২৪ তারিখ দক্ষিণবঙ্গের নদীগুলোর জলের পরিমাণ অনেকটাই বাড়বে। নিচু জায়গাগুলোতে কিন্তু আবারও জল জমার একটা সম্ভাবনা থাকছে।
 

912

নবান্ন সূত্রে খবর, প্রত্যেক জেলা শাসককে বিপর্যয় মোকাবিলার খরচ দেওয়া হয়েছে। এখনও পর্যন্ত রাজ্যের ৪৭ টি ব্লক এবং ৮ টি পুরসভা জলের নীচে। প্রায় ১৩ লক্ষ ১৪ হাজার ৩২৮ জন মানুষ জলবন্দি রয়েছেন।ইতিমধ্যেই  জলে ডুবে, দেওয়াল খসে, বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে একাধিক জন প্রাণ হারিয়েছেন। ক্ষতিগ্রস্ত ১ লক্ষ বাড়ি এবং ক্ষতিগ্রস্ত চাষের জমি-শস্য, গবাদি পশু। তাই যে কোনও সমস্যায় নবান্নের কন্ট্রোল রুমে টোল ফ্রি নাম্বার ১০৭০ তে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।
 

1012


  আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর,আগামী কয়েকদিন ভারী বৃষ্টি হবে উত্তরপ্রদেশ ও উত্তরাখণ্ডেও। এছাড়াও উত্তরপশ্চিম ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে বৃষ্টি বাড়বে। আগামী কয়েক দিন বৃষ্টি বেশি হবে রাজস্থান এবং গুজরাটেও। বৃষ্টি হবে তামিলনাডু মহারাষ্ট্র কঙ্কন ও গোয়া এলাকাতেও।  

1112

শনিবার তাপমাত্রা (Temparature) স্বাভাবিকের থেকে নীচে থাকলেও আগের থেকে অনেকটাই বেড়েছে। আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, শনিবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৩.৬ ডিগ্রি সেলসিয়ার্স। স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি উপরে। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা  ২৭.১ ডিগ্রী।  স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি উপরে।
 

1212

অপরদিকে,শুক্রবার শহরের বাতাসে জলীয়বাষ্পের (Humidity) সর্বোচ্চ পরিমাণ ৯৭ শতাংশ।   সর্বনিম্ন  ৫৫ শতাংশ বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস। তবে আগামী দুদিন বাড়বে তাপমাত্রা সঙ্গে আর্দ্রতা জনিত অস্বস্তি।