এবার থেকে বিচ্ছেদের পর স্বামীর বেতনের ৩০% দিতে হবে স্ত্রীকে। সম্প্রতি দিল্লি হাইকোর্ট দিল এক নয়া নির্দেশ। হাইকোর্টার তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে, একজন ব্যক্তির আয়ের ওপর যদি স্ত্রী নির্ভর করে থাকেন তাহলে স্ত্রীকে স্বামীর আয়ের ৩০% অর্থ খোরপোষ হিসাবে দিতে হবে। 

সম্প্রতি একজন মহিলার বিবাহ বিচ্ছেদের পর খোরপোষ-এর মামলাযর রায়ে এমনটাই জানিয়েছে দিল্লি হাইকোর্ট৷ আদালতের নির্দেশ, স্বামীর বেতনের ৩০ শতাংশ দিতে হবে ওই মহিলাকে৷ ২০০৬-এর ৭ মে এক সিআইএসএফ ইন্সপেকটরের সঙ্গে নিয়ে হয় ওই মহিলার। তাঁদের বিচ্ছেদ ঘটে ওই বছরেরই অক্টোবর মাসে। এরপর ওই মহিলা খোরপোষ চেয়ে আদালতের দ্বারস্থ হন। 

মহিলার বিয়ে ৭ মে ২০০৬ সালে CISF ইন্সপেক্টরের সঙ্গে হয়েছিল ৷ ১৫ অক্টোবর ২০০৬ সালে তারা আলাদা হয়ে যায় ৷ এরপর  আবেদন জানিয়েছেন আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন মহিলা। সেইবার আদালতের তাঁকে রায় দেয় যে, তাঁর আয়ের ৩০% ওই মহিলাকে দিতে হবে। কিন্তু আদালতের এই রায়ের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছিল মহিলার স্বামী। সেইসময়ে ট্রায়াল কোর্ট খোরপোষের পরিমাণ কমিয়ে করে ১৫%। 

আরও পড়ুন- বালাকোট, পুলওয়ামা অতীত, শান্তি ফেরাতে পা বাড়াল ইমরান, কী ভাবছেন মোদী

ঘটনাচক্রে ট্রায়াল কোর্টের রায়কে পুনরায় চ্যালেঞ্জ করে ওই মহিলা। এরপর তাঁর আইনজীবী দাবি করেন ট্রায়াল কোর্ট কোনও কারণ ছাড়াই খোরপোষের পরিমাণ কমিয়ে দিয়েছে। এরপর দিল্লি হাইকোর্ট সেই খোরপোষের পরিমাণ পুনরায় বাড়িয়ে ৩০ শতাংশ করে।