Asianet News BanglaAsianet News Bangla

PM Modi: রবিবার প্রধানমন্ত্রী মোদীর নেতৃত্বে সর্বদলীয় বৈঠক, শীতকালীন অধিবেশন নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা

গুরু নানকের জন্মদিনে তিনটি বিতর্কিত কৃষি আইন প্রত্যাহার করে আন্দোলনকারী কৃষকদের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কিন্তু তারপরেও এখনও পর্যন্ত কৃষক আন্দোলনে রাশ টানতে পারেনি কেন্দ্রীয় সরকার। 

ahead of parliament winter session pm modi to lead all party meeting on Sunday bsm
Author
Kolkata, First Published Nov 22, 2021, 3:09 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

আগামী ২৯ নভেম্বর শুরু হতে চলেছে সংসদের শীতকালীন অধিবেশন (parliament winter session )। সূত্রের খবর তার আগের দিন অর্থাৎ রবিবার (২৮.১১.২০২১) সর্বদলীয় বৈঠক হবে। সেই বৈঠকের নেতৃত্ব দেবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (PM Narendra Modi)। সর্বদলীয় বৈঠক হবে আগামী রবিবার বেলা ১১টা নাগাদ। একই দিন বিকেলে বৈঠকে বসবে বিজেপি (BJP) সংসদীয় কমিটির সদস্যরা। সরকার ও বিরোধী দুই পক্ষের কাছেই শীতকালীন অধিবেশন যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ বলেও মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। 

গুরু নানকের জন্মদিনে তিনটি বিতর্কিত কৃষি আইন প্রত্যাহার করে আন্দোলনকারী কৃষকদের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কিন্তু তারপরেও এখনও পর্যন্ত কৃষক আন্দোলনে রাশ টানতে পারেনি কেন্দ্রীয় সরকার। কৃষকদের দাবি তিনটি কৃষি আইন সংসদের উভয়কক্ষেই প্রত্যাহার করতে হবে। পাশাপাশি কৃষকরা এখনও পর্যন্ত তাদের পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচিও প্রত্যাহার করেনি। সংসদ অভিযান, লখনউয়ের কৃষক মহাপঞ্চায়েতসহ একাধিক কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে বলেও জানিয়েছে সংযুক্ত কিষান মোর্চা। এই অবস্থায় নূ্ন্যতম সহায়ক মূল্যসহ একাধিক দাবিতে আন্দোলন চলবে বলেও জানিয়েছে মোর্চা। কৃষকদের এই দাবি বিরোধীদেরও সংসদে অক্সিজেন যোগাবে বলেও মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে আসন্ন শীতকালীন অধিবেশনে কৃষি আইন প্রত্যাহার একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হয়ে উঠেব। বুধবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে আইন প্রত্যাহের বিল পাশ করা হবে। পরে তা পেশ করা হবে সংসদে। 

Tripura: ত্রিপুরা ইস্যুতে সুপ্রিম কোর্টে যেতে পারে তৃণমূল, টুইট করে ব্যবস্থা নেওযার আবেদন অভিষেকের

শীতকালীন অধিবেশনে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু হতে পারে চিনা আগ্রাসন । যা নিয়ে ইতিমধ্যেই সুর চড়াচ্ছে কংগ্রেস। রাহুল গান্ধীর পর চিনা আগ্রাসন নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছেন কংগ্রেস নেতা অভিষেক মনু সাংভি। সম্প্রতি প্রকাশিক একটি স্যাটেলাইট চিত্র অরুণাচল সীমান্তে তৈরি হয়েছে চিনা গ্রাম। ভূটানেও চিনা গ্রামের ছবি প্রকাশ্যে এসেছে। ডোকলামের কাছে এই গ্রাম নিয়ে সুর চড়িয়েছে বিরোধীরা। অন্যদিকে নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রীর দাম বৃদ্ধি নিয়েও বিরোধীরা সুর চড়াতে পারে।

Farm Law Repealed: কৃষক আন্দোলন চলবে, এবার কৃষকদের খোলা চিঠি প্রধানমন্ত্রী মোদীকে

 তবে সদ্যো ত্রিপুরায় তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপির বিবাদের আঁচও সংসদে পড়তে পারে বলে মনে করছেন অনেকে। কারণ ইতিমধ্যেই ত্রিপুরার ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে দিল্লিতে ধর্না শুরু করেছে তৃণমূল সাংসদরা। তারপর রয়েছে কাশ্মীর সমস্যা। যা নিয়ে ইতিমধ্যেই উত্তপ্ত হয়েছে দেশের রাজনীতি। এইসব বিষয়গুলি তুলে বিরোধীরা সরকার পক্ষকে কোনঠাসা করতে চাইবে। আর সেই সুযোগ না পেলে বাদল অধিবেশনের মতই অধিবেশন বয়কট করতে পারে। শিকেয় উঠতে পারে সংসদের আলোচনা। সংসদে সব মিলিয়ে আসন্ন শীতকালীন অধিবেশন যে যথেষ্টই উত্তপ্ত হয়ে উঠবে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। 

Miracle: 'মৃত ব্যক্তি' শ্বাস নিল মর্গের ফ্রিজারে, অলৌকিক ঘটনার সাক্ষী সরকারি হাসপাতাল

এই অবস্থায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে সর্বদলীয় বৈঠকও যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। অধিবেশনের আলোচনা, কাজকর্ম সবকিছুই এখানেই আলোচনা হতে পারে। এই বৈঠক থেকেই আভাস পাওয়া যেতে পারে কেমন হতে চলছে শীতলাকীন অধিবেশন। অন্যদিকে বিরোধীর কড়া হাতে মোকাবিলার করার রণকৌশল তৈরি করতেই রবিবার বিকেলে বিজেপির পার্লামেন্টারি এক্সিকিউটিভ কমিটির বৈঠক হবে। সেখানেই সরকার পক্ষের সাংসদদের কী ভূমিকা হবে তাও চুড়ান্ত হবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে। তবে তার আগে বিজেপির সাংসদরা একটি বৈঠক করবেন বেলা ৩টে নাগাদ। সূত্রের খবর সেই বৈঠকেই উপস্থিত থাকতে পারেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios