বিজেপি নেতারা মুখে 'সবকা সাথ, সবকা বিকাশ'- এর কথা বলছেন বিজেপি নেতারা। কিন্তু জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের রিপোর্ট বলছে, এখনও সংখ্যালঘু এবং দলিতদের উপরে হামলার ঘটনা সবথেকে বেশি ঘটে বিজেপি শাসিত উত্তর প্রদেশে। গোটা দেশে দলিত বা সংখ্যালঘুদের উপর হামলার যত ঘটনা ঘটে, তার ৪৩ শতাংশই যোগী আদিত্যনাথের রাজ্যের। 

গত ১৬ জুলাই ইন্ডিয়ান মুসলিম লিগের সাংসদ কে নভস্কানির প্রশ্নের উত্তরে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফেই জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের এই তথ্য তুলে দেওয়া হয়েছে। সেই অনুযায়ী, ২০১৬ থেকে ২০১৯ সালের ১৫ জুন পর্যন্ত গোটা দেশে দলিত এবং সংখ্যালঘুদের উপরে মোট ২০০৮টি হামলার ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে ৮৬৯টি ঘটনাই উত্তর প্রদেশের। 

আরও পড়ুন-জমি সংঘর্ষে নিহতদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে উত্তরপ্রদেশে আটক প্রিয়ঙ্কা গান্ধী

যদিও সেই রিপোর্ট অনুযযায়ী, ২০১৬-১৭-র তুলনায় ২০১৮-১৯-এর মধ্যে উত্তরপ্রদেশে সংখ্যালঘুদের উপরে হামলার ঘটনা প্রায় ৫৪ শতাংশ কমেছে। আবার এই সমকালের মধ্যেই যোগী রাজ্যে দলিতদের উপরে হামলার ঘটনা প্রায় ৪১ শতাংশ বেড়ে গিয়েছে। 

সামগ্রিকভাবে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের তথ্য বলছে, ২০১৬-১৭ সালে গোটা দেশে সংখ্যালঘুদের উপরে আক্রমণের ১১৭টি ঘটনা ঘটেছিল। ২০১৭-১৮ সাল তা কমে হয় ৬৭। কিন্তু পরের বছরই তা বেড়ে হয়েছিল ৭৯। এ বছরে (১ এপ্রিল থেকে ১৫ জুন) পর্যন্ত সংখ্যালঘুদের উপরে হামলার পাঁচটি ঘটনা গোটা দেশে নথিভুক্ত হয়েছে বলে দাবি করা হচ্ছে। 

আরও পড়ুন- ঘর ছাড়লেই ভিটে হারানোর ভয়, বন্যার মধ্যেও এনআরসি আতঙ্ক

সংখ্যালঘুদের উপরে হানমলার ঘটনা কমার দাবি করলেও দলিতদের উপরে হামলার ঘটনা অনেকটাই বেড়েছে বলে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের তথ্যে উঠে এসেছে। গত তিন বছরে দলিতদের উপরে হামলার ঘটনা প্রায় ৩৩ শতাংশ বেড়ে গিয়েছে।  ২০১৬-১৭ সালে যেখানে ৬৭২টি হামলার ঘটনা ঘটেছিল, সেখানে ২০১৮-১৯ সালে তা বেড়ে হয়েছিল ৬৭২। এ বছর জুন মাসের পনেরো তারিখ পর্যন্ত দলিতদের উপরে হামলার ৯৯টি ঘটনা নথিভুক্ত করা হয়েছে। সংখ্যালঘু এবং দলিতদের উপরে হামলার ক্ষেত্রে উত্তরপ্রদেশের (৮৬৯টি ঘটনা) পরেই রয়েছে রাজস্থান (১৩১টি ঘটনা)। 

মূলত হিন্দিভাষী গোবলয়ের রাজ্যগুলিতেই যে দলিত এবং সংখ্যালঘুদের উপরে সবথেকে বেশি হামলার ঘটনা ঘটছে, তা ফের প্রমাণিত। উত্তরপ্রদেশ, রাজস্থান, বিহার, হরিয়ানা এবং মধ্যপ্রদেশ- এই পাঁচ রাজ্যেই গোটা দেশের দলিত এবং সংখ্যালঘুদের উপরে হামলার ঘটনার ৬৪ শতাংশ ঘটেছে। এই পাঁচ রাজ্যের সবথেকে কাছাকাছি রয়েছে দিল্লি, গুজরাট এবং উত্তরাখণ্ড। 

অন্যদিকে দক্ষিণের তামিলনাড়ু, কেরল, তেলেঙ্গানা বা উত্তর-পূর্ব এবং পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলিতে এই ধরনের হামলার ঘটনা একেবারেই নগণ্য। এই সময়কালের মধ্যে (২০১৬ থেকে ২০১৯-এর ১৫ জুন) উত্তর- পূর্বের আটটি রাজ্যে দলিত এবং সংখ্যালঘুদের উপরে হামলার ঘটনা শতাংশের নিরিখে ০.৫৪ শতাংশ। পশ্চিমবঙ্গ এবং ওড়িশায় তা ৫.১৭ শতাংশ।