সম্প্রতি ওড়িশার মালকঙ্গিরি জেলায় কটি ১১ ফুট লম্বা শঙ্খচূড় সাপ খুঁজে পাওয়া গিয়েছে। যার ফলে স্বভাবতই সাপটিকে নিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে শুরু হয়েছে উত্তেজনা। মারাত্মক বিষধর এই সাপটির ওজন প্রায় ২৫ কোজি। স্নেক হেল্পলাইন রেসককিউ-এর একটি দল এদিন সাপটিকে উদ্ধার করেন।  

বিষধর সাপের কামড়ে প্রতি বছর ভারতে অন্তত ২০ হাজার মানুষের মৃত্য়ু হয়। সেই কারণে সাপের কামড়ে মৃত্যু কথা শুনলে আজও অনেক মানুষের মনে আক্রান্ত মানুষটিকে নিয়ে নানা প্রশ্ন দেখা দেয়। প্রসঙ্গত, সবচেয়ে বিষধর সাপের কথা মাথায় এলেই সবার প্রথমে যার কথা মাথায় আসে কিং কোবরা বা শঙ্খচূড়। আসামের মধ্যে সবথেকে বেশি পাওয়া যায় এই বিষধর সাপ। সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর, অসমে সম্প্রতি উদ্ধার হওয়া শঙ্খচূড়'টির ওজন ছিল ১৪ কেজি। কিন্তু সম্প্রতি ওড়িশায় উদ্ধার হওয়া সাপটির ওজন এর থেকেও অনেক বেশি। 

সারা ভারত জুড়ে প্রায় ২৭৬ প্রজাতির সাপ খুঁজে পাওয়া যায়। যার মধ্যে ৩৬টি প্রজাতি খুঁজে পাওয়া যায়। সব প্রজাতির মধ্যে প্রায় ৫০টি প্রজাতির সাপ ভয়ঙ্কর বিষধর। আর এর মধ্যে শঙ্খচূর সাপের বিষ সবচেয়ে বিষধর এবং প্রাণঘাতিও।