Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Griha Laxmi : লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের মতো গৃহলক্ষ্মী, প্রতি মাসে মহিলাদের অ্যাকাউন্টে ঢুকবে ৫ হাজার টাকা

আজ টুইটারে একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে তৃণমূল। সেখানে গৃহলক্ষী প্রকল্প সম্পর্কে একাধিক তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। জানানো হয়েছে, এই প্রকল্পে মহিলাদের আর্থিক স্বাবলম্বী করা হবে। তার জন্য গৃহলক্ষ্মী কার্ড চালু করা হবে। 

TMC promises woman of goa will get 5 thousand per month bmm
Author
Kolkata, First Published Dec 11, 2021, 6:15 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

একুশের বিধানসভা ভোটের (Assembly Election) আগে লক্ষ্মীর ভাণ্ডার (Laxmir Bhandar) প্রকল্পের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। এই প্রতিশ্রুতি ছিল সবথেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। এই প্রকল্পে (Scheme) মহিলাদের (Woman) মাসে মাসে টাকা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। আর রাজ্যে তৃতীয়বার ক্ষমতায় (Third Time in Power) আসার পর সেই প্রকল্প কার্যকর করেছেন মমতা। এবার তৃণমূলের (TMC) নিশানায় রয়েছে গোয়া (Goa)। একাধিক বাইরের রাজ্যকে পাখির চোখ করে এগোচ্ছে তারা। আর সেই তালিকায় গোয়া অন্যতম। ২০২২ সালে সেখানে বিধানসভা নির্বাচন রয়েছে। তাই সেখানকার মহিলাদের ভোট পেতে এবার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হল তৃণমূলের তরফে। বিধানসভা নির্বাচনে সেখানে ক্ষমতায় এলে চালু করা হবে গৃহলক্ষী প্রকল্প (Griha Laxmi Scheme)। সেই প্রকল্পে সেখানকার মহিলারা মাসে ৫ হাজার টাকা করে পাবেন বলে তৃণমূলের তরফে ঘোষণা করা হয়েছে।

আজ টুইটারে একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে তৃণমূল। সেখানে গৃহলক্ষী প্রকল্প সম্পর্কে একাধিক তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। জানানো হয়েছে, এই প্রকল্পে মহিলাদের আর্থিক স্বাবলম্বী করা হবে। তার জন্য গৃহলক্ষ্মী কার্ড (Griha Laxmi Card) চালু করা হবে। সেই কার্ডের মাধ্যমে মহিলারা প্রতি মাসে ৫ হাজার টাকা করে পাবেন। অর্থাৎ বছরে মোট ৬০ হাজার টাকা পাবেন মহিলারা। সেই টাকা সরাসরি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে চলে যাবে। প্রায় সাড়ে তিন লক্ষ পরিবারকে এই প্রকল্পের আওতায় আনা হবে। আরও জানানো হয়েছে যে এই প্রকল্প কার্যকর করতে হলে রাজ্য সরকারের খরচ হবে ১৫০০ থেকে ২০০০ কোটি টাকা, যা রাজ্য বাজেটের ৬ থেকে ৮ শতাংশ বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

 

 

রাজ্যে একুশের বিধানসভা নির্বাচনে বিপুল পরিমাণ ভোট পেয়ে ফের ক্ষমতায় এসেছে তৃণমূল। আর ভোটের আগে লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের মতো প্রকল্পের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। তারপর তা বাস্তবায়িত করা হয়। ইতিমধ্যে এই প্রকল্পের আওতায় বহু মহিলা টাকা পাচ্ছেন। লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের মতো স্কিমগুলির উপরে তৃণমূলের আস্থা বেড়েছে বলে মনে করে রাজনৈতিক মহলের একাংশ। বাংলার পাশাপাশি গোয়াতেও মহিলাদের বিশেষ গুরুত্ব দেওয়ার কথা বলছেন মমতা। তাই সেখানেও একই কৌশল কাজে লাগাতে চাইছে ঘাসফুল শিবির। তবে বাংলার মতো সেখানেও এই প্রকল্পের মাধ্যমে তৃণমূল বাজিমাত করতে পারে কিনা এখন সেটাই দেখার বিষয়। সূত্রের খবর, ১৩ ডিসেম্বর গোয়াতে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। গোয়ায় তৃণমূল সংগঠন বিস্তার করার পর এই নিয়ে দ্বিতীয় বার সে রাজ্যে যাচ্ছেন তিনি। 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios