সম্প্রতি  কলকাতা পুলিস ট্রেনিং স্কুলে বিক্ষোভের ঘটনায় ১৩ জন পুলিশ কর্মীকে রাজ্যের ৫টি জেলায় বদলি করা হয়েছে। এই মর্মে বদলির বিষয়ে ডেপুটি ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিস ( অ্যাডমিনিস্ট্রেশন) অর্ডার মারফত জানিয়ে দিয়েছেন। এই ঘটনায় রীতিমতো ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন কমব্যাট ব্যাটেলিয়নের পুলিশ কর্মীরা।

আরও পড়ুন, করোনা আক্রান্ত নিজাম প্যালেসের এক সিবিআই আধিকারিক, স্যানিটাইজ করা হল পুরো অফিস

উল্লেখ্য, গত ১৯ মে করোনায় কিছু কর্মী আক্রান্ত হওয়া এবং পর্যাপ্ত সুরক্ষা সরঞ্জাম ছাড়া ডিউটি করানোর অভিযোগে বিক্ষোভ দেখান কলকাতা পুলিশ ট্রেনিং স্কুলের কর্মীরা। এই ঘটনায় বিতর্ক তৈরি হয় কলকাতা পুলিশের ভূমিকা নিয়ে।   ডিসি কমব্যাট নেভেন্দ্র সিং ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গেলে তাঁকে রীতিমতো নিগ্রহ করা হয় বলে অভিযোগ। রাতভর পিটিএস-এর সামনে রাস্তা অবরোধ করা হয়। বিক্ষোভের রেশ যায় লালবাজারেও। পরেরদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘটনাস্থলে গিয়ে বিক্ষুব্ধ পুলিশকর্মীদের কথা বলেন। তাঁদের আশ্বস্ত করে শান্ত করেন। এই ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেছিলেন নগরপাল অনুজ শর্মা। সেইমতো ১৩ জন পুলিশকর্মীকে রাজ্যের পাঁচটি জেলায় বদলি করা হয়েছে। ডিআইজি (অ্যাডমিনিস্ট্রেশন) বদলির অর্ডার জারি করেছেন। 

আরও পড়ুন, কুমোরটুলিতে পুজোর পরশ, উমা যাচ্ছেন সপরিবারে ক্যাঙ্গারুর দেশে


সেই ঘটনার ২১ দিনের মাথায় ১৩ জন বিক্ষুব্ধকারী পুলিস কর্মীকে বদলি করা হল। এদের মধ্যে কোচবিহার জেলায় ৩ জন, দার্জিলিংয়ে ২ জন, জলপাইগুড়িতে ৩ জন, আলিপুরদুয়ারে ৩ জন এবং কালিম্পংয়ে ২ জনকে বদলি করা হয়েছে। ডিসি কমব্যাট নেভেন্দ্র সিংকে পাঠানো হয়েছে ওয়্যারলেস বিভাগে। 

 

করোনা আবহে সুরজিৎ কর পুরকায়স্থের প্রাক্তন স্ত্রী-শাশুড়ির দেহ উদ্ধার, তদন্তে পুলিশ

 পিটিএসে নতুন করে আক্রান্ত আরও ৮, করোনা মুক্ত হয়ে কাজে ফিরলেন ১০০ পুলিশ কর্মী

বাংলাদেশ ফেরৎ ২ যাত্রী করোনা পজিটিভ, কোয়ারান্টিনের পর আক্রান্ত হওয়ায় চিন্তায় স্বাস্থ্য দফতর

 কলকাতা মেডিক্যালের ছাদের কার্নিশে বসে করোনা রোগী, সামলাতে গিয়ে নাজেহাল কর্তৃপক্ষ

দেহ রাখার জায়গা না থাকায় ডিপ ফ্রিজ বসছে মেডিকেলের মর্গে, মৃতদেহ 'ম্যানেজমেন্ট'-এ নিয়োগ অ্যাসিস্ট্যান্ট