স্বভাবতই শিশুর ত্বক কোমল। সতর্কতা অবলম্বন করেই যত্ন নিতে হয় নবজাতকের। তবে গরমের দিনে সমস্যা বেশি করে বাড়ে। অস্বস্তি ভাব তো আছেই, সঙ্গে দেখা দেয় ত্বকের হাজারো সমস্যা। ফলে কারণে-অকারণে বিব্রত হয় শিশু।

গরমের দিনে তাই শিশুর ত্বকে যত্ন নেওয়াটা আবশ্যিক। বিশেষ করে দিনের বেলা শিশুর উপরে নজর রাখুন। স্বল্প রোদেই তাদের হতে পারে সানবার্ন। যা থেকে দেখা দিতে পারে ত্বকের নানা সমস্যা। 

অতিরিক্ত রোদে এই সমস্যাই চরম আকার ধারণ করে। বেড়ে ওঠে ম্যালিগন্যান্ট মেলানোমার সম্ভাবনা। যা সবচেয়ে বিপদজনক ত্বক ক্যান্সারের রূপ নেয় পরবর্তিতে। তাই শিশুকে গরমের দিনে সানবার্ন থেকে বাঁচিয়ে রাখা একান্ত প্রয়োজনীয়।–জেনেনিন ঠিক কী কী উপায় অবলম্বণ করে আপনি সুরক্ষিত রাখতে পারেন আপনার শিশুকে-

  • সাধারণত শিশুর ত্বক সানবার্ন-এর ফলে লাল হয়ে ওঠে। যা থেকে তাদের জ্বালাভাবও অনুভুত হয়। এই অবস্থায় ঠান্ডা জলে ভেজানো নরম কাপর ত্বকের ওপর ১০-১৫ মিনিট রাখা প্রয়োজন। দিনে অন্ততপক্ষে তিনবার এমনভাবে স্পঞ্জ করলে তা আরামদায়ক হয়।
  • সার্নবার্ন হওয়া ত্বকের উপরে কোনও দুধ জাতীয় ক্রিম বা অ্যালোভেরা জাতীয় ময়শ্চরাইজার ব্যাবহার করা যেতে পারে।
  • গরমের দিনে শিশুর ত্বককে সুস্থ ও নিরাপদ রাখতে দিনের বেলা বিশেষ করে ১০টা থেকে ৪টে পর্যন্ত বাইরে না নিয়েই যাওয়াটাই ভালো।
  • হালকা রঙের সুতির পোশাক পরানোর ফলে ত্বকে ইনফেকশনের সম্ভাবনাও অনেক কমে যায়, এবং শিশুরা তাতে স্বস্তি বোধ বারে।
  • একান্তই প্রয়োজনে বাড়ির বাইরে যেতে হলে,যথাসম্ভব শিশুর ত্বক ঢেকে রাখা উচিৎ। শিশুর উপযুক্ত সানস্ক্রিম বাইরে যাওয়ার অন্তত ২০ মিনিট আগে ত্বকে লাগাতে হবে।
  • পরিমাণ মত জল এবং ফলের রস শিশুকে সময় মত খাওয়াতে হবে।

সরাসরি রোদ থেকে  শিশুকে সরিয়ে রাখতে পারলে ত্বকের সমস্যা অনেকাংশে কমে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তাই সতর্ক থাকা উচিৎ প্রতি মুহুর্তে। অবশ্যই সমস্যা বাড়লে অবিলম্বে ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া প্রয়োজন।