ডোকরা এবং টেরাকোটা শিল্পের জন্য বিখ্যাত বাঁকুড়া জেলা। এই শিল্পর সঙ্গে যুক্ত শিল্পীরা এই জেলার নাম উজ্জ্বল করেছেন। এবার সেই ডোকরার আদলে কাগজ দিয়ে দুর্গা প্রতিমা বানিয়ে তাকে লাগিয়ে দিলেন বাঁকুড়ার গৃহবধূ অর্পিতা সরকার। বাড়িতে বসেই সংসারের কাজ করতে করতে অবসর সময়ে প্রায় দু' মাসের চেষ্টায় ডোকরার আদলে কাগজ দিয়ে এই দুর্গা প্রতিমাকে রূপ দিয়েছেন তিনি। 

ছোট্ট এই অভিনব দুর্গা দেখতে বাঁকুড়া শহরের কেন্দুয়ারিতে শিল্পীর বাড়িতে আসছেন অনেকেই। দুর্গা পুজো এলেই নিত্যনতুন দুর্গা বানানোর ইচ্ছে হয় শিল্পীর। ফেলে দেওয়া জিনিস কাজে লাগিয়ে নিজের সৃজনশীলতাকে ফুটিয়ে তোলেন অর্পিতাদেবী। ছোটবেলা থেকেই হাতের কাজ বেশ পছন্দ শিল্পীর। এর আগেও তেজপাতা , ভুট্টা গাছের ছাল দিয়ে দুর্গা প্রতিমা বানিয়ে চমকে দিয়েছিলেন এই গৃহবধূ।

অর্পিতাদেবী জানিয়েছেন, ছোট থেকেই ফেলে দেওয়া জিনিস কাজে লাগিয়ে সৃষ্টিশীল কিছু তৈরি করতে ভালবাসেন তিনি। ছোটদেরও বিনা পারিশ্রমিকে হাতের কাজ শেখান। ডোকরার কাজ হয় ধাতব বস্তু ব্যবহার করে। সেখানে কাগজের মতো জিনিস দিয়েই অর্পিতাদেবী এমন শিল্পকর্ম সৃষ্টি করেন, যা দেখে বোঝা যায় না সেটি কাগজের তৈরি নাকি কোনও ধাতুর। 

এর আগে তাঁর তৈরি দুর্গা মূর্তি অনেক পুজোর উদ্যোক্তারা মণ্ডপ সাজাতে নিয়ে গিয়েছেন। এবারের এই কাগজের মূর্তি নিয়েও আগ্রহ দেখিয়েছেন অনেকে। অর্পিতাদেবীর কথায়, 'ফেলে দেওয়া জিনিসও যে কাজে লাগানো যায়, সেটাই বোঝাতে চাই আমি। থার্মোকল বা প্লাস্টিক নয়, ফেলে দেওয়া কাগজের মতো পরিবেশবান্ধব জিনিসকেই কাজে লাগাতেই এই মূর্তি তৈরি করেছি আমি।'