গত কয়েক দিনে কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের সব জেলাতেই তাপমাত্রা উত্তোরোত্তর বাড়ছিল। কোনও সুখবর শোনাতে পারছিল না আলিপুর আবহাওয়া দফতর। এইস অবস্থায় সকলেই বৃষ্টি কামনা করছিলেন। অবশেষে সেই বৃষ্টি আসার অনুকূল আবহাওয়া তৈরি হচ্ছে বলে সোমবার বিকেলে জানালো হাওয়া অফিস। কিন্তু, সেটা কি সত্যিই সুখবর?

দক্ষিণবঙ্গের গত ২৪ ঘন্টার আবহাওয়া

আবহাওয়া দফতর থেকে জানানো হয়েছে গত ২৪ ঘন্টায় দক্ষিণবঙ্গের সব জেলাতেই সর্বোচ্চ তাপমাত্রা কমেছে। গত কয়েকদিনে যে ক্রমেই তা বেড়ে চলেছিল, তাতে ব্রেক লেগেছে। কোথাও কোথাও অংশত মেঘলা আকাশও ছিল। পুরুলিয়া বাঁকুড়া, পশ্চিম বর্ধমান ও নদীয়া জেলায় খুব হাল্কা বৃষ্টিও হয়েছে।

দক্ষিণবঙ্গের আগামী ৪৮ ঘন্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাস

আগামী ৪৮ ঘন্টাতেও সর্বোচ্চ তাপমাত্রা আর বাড়বে না বলেই পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলির আকাশ অংশত মেঘলা থাকবে। কোনও কোনও জেলায় হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনাও রয়েছে।

কী ভাবে তৈরি হল বৃষ্টির সম্ভাবনা?

উত্তর দক্ষিণে নিম্নচাপ অক্ষরেখার অবস্থান এবং বিহার-ঝাড়খণ্ডের পূর্ব অংশে একটি ঘুর্ণাবর্তের অবস্থা -এই দুইয়ের মিলিত প্রভাবেই দক্ষিণবঙ্গের আকাশে মেঘের সঞ্চার হচ্ছে। বাতাসে জলীয় বাষ্পও বাড়ছে। সেই সঙ্গে উত্তর ভারতে পর পর দুটি পশ্চিমী ঝঙ্ঝার কারণে উত্তর ভারতের রাজ্যগুলির তাপমাত্রাও অনেকটা কমেছে। তাই সেইদিক থেকে পশ্চিমবঙ্গে উষ্ণ বাতাস আসা বন্ধ হয়েছে।

কমবে কি অস্বস্তি?

এতেও অস্বস্তি কমার আশা নেই বলেই জানানো হয়েছে। কারণ বাতাসে ক্রমে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ বাড়ছে। এছাড়া আকাশে মেঘ থাকায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা বেড়ে যাবে। এতদিন আকাশ পরিষ্কার থাকায় দিনের বেলায় প্রচন্ড গরম থাকলেও, রাতে তাপমাত্রা অনেকটাই কমে গিয়ে আবহাওয়া অনেক স্বস্তিদায়ক হয়ে যাচ্ছিল। আকাশে মেঘ থাকায় আপাতত কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে রাতের তাপমাত্রা বাড়বে। এছাড়া বৃষ্টিপাতের যেটুকু যা সম্ভাবনা রয়েছে তা সবটাই ১৫ মে তারিখের মধ্যে। তারপর তাপমাত্রা আবার ঊর্ধ্বগামী হবে বলে জানানো হয়েছে।

কী অবস্থা উত্তরবঙ্গের আবহাওয়ার?

তবে অনেক ভালো অবস্থায় রয়েছে উত্তরবঙ্গ। সেখানে রবিবার (১২ মে) থেকেই বিভিন্ন জায়গায় মাঝারি থেকে ভারি বৃষ্টি হয়েছে। দার্জিলিং-এর বেশ কিছু জায়গায় ভারী বৃষ্টি হয়। কুচবিহার, জলপাইগুড়িতেও বৃষ্টি হয়েছে। কোথাও কোথাও শিলাবৃষ্টিও হয়েছে। শুধু তাই নয়, উত্তরবঙ্গের সব জেলাতেই আগামী ৪৮ ঘন্টাও বৃষ্টি চলবে বলে জানানো হয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর থেকে।