হরিয়ানা ও মহারাষ্ট্রের বিধানসভা নির্বাচনের পাশাপাশি উত্তর প্রদেশের ১১টি আসনে উপনির্বাচন হয়েছে। সকাল সাতটা থেকে এই উপনির্বাচনের ভোটগণনা শুরু হয়ে গিয়েছে।  ১১টি আসনের বিধায়কদের মধ্যে ১০টি আসনের বিধায়ক সাংসদরা লোকসভা নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করেছিলেন। অন্য দিকে, ফগু চৌহান বিহারের রাজ্যপাল হওয়ার কারণে একটা বিধায়কের আসন ফাঁকা হয়ে গিয়েছে। উত্তর প্রদেশের এই নির্বাচনে ৪৫.৫ শতাংশ ভোট পড়েছে বলে জানা গিয়েছে। 

উত্তর  প্রদেশের ১১টি  আসনে প্রার্থীরা হলেন 

গাঙ্গো- বিজেপি থেকে প্রার্থী হয়েছেন কৃৎপাল সিং, এসপি থেকে প্রার্থী হয়েছেন ইন্দারসান, বিএসপি থেকে প্রার্থী হয়েছেন এরশাদ চৌধুরি, কংগ্রেস থেকে প্রার্থী হয়েছেন নোম্যান মাসুদ

রামপুর- বিজেপি  থেকে প্রার্থী  হয়েছেন ভারত ভূষণ গুপ্তা, এসপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন তানজিন ফাতিমা, বিএসপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন জুবির খান, আরশাদ খান কংগ্রেস 
 
ইগলাস-  বিজেপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন  রাজকুমার জোটের সদস্য, আরএলডি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন সুমন, বিএসপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন অভয় কুমার, কংগ্রেস থেকে প্রার্থী হয়েছেন উমেশ কুমার

লখনউ ক্যান্টনমেন্ট- বিজেপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন সুরেশ তিওয়ারি , এসপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন আশিষ চতুর্বেদি, বিএসপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন অরুণ দ্বিভেদি,   কংগ্রেস থেকে প্রার্থী হয়েছেন দিলপ্রীত সিং

গোবিন্দনগর- বিজেপি থেকে প্রার্থী হয়েছেন সুরেন্দ্র মাথানি, এসপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন সম্রাট বিকাশ, বিএসপি থেকে প্রার্থী হয়েছেন দেবী প্রসাদ, কংগ্রেস  থেকে প্রার্থী হয়েছেন করিশ্মা ঠাকুর 

মানিকপুর - বিজেপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন আনন্দ শুক্লা, এসপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন নির্ভয় প্যাটেল, বিএসপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেনরাজনারায়ণ, কংগ্রেস থেকে প্রার্থী হয়েছেন রঞ্জনা পাণ্ডে

প্রতাপগড়- আপনা দল থেকে প্রার্থী হয়েছেন রাজকুমার পাল, এসপি থেকে প্রার্থী হয়েছেন বিজেশ বর্মা, বিএসপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন রঞ্জিত প্যাটেল, কংগ্রেস  থেকে প্রার্থী হয়েছেন নিরজ ত্রিপাঠী। 

জায়েদপুর- বিজেপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন অম্বরিশ রাওয়াত, এসপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন গৌরভ রাওয়াত, এসপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন অখিলেশ আম্বেদকর, কংগ্রেস  থেকে প্রার্থী হয়েছেন তনুজ পুনিয়া

জালালপুর- বিজেপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন রাজেশ সিং, এসপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন সুভাষ রাই, বিএসপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন ছায়া বর্মা, কংগ্রেস থেকে সুনীল মিশ্র

বালহা- বিজেপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন সরোজ সোনকর, এসপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন কিরণ ভারতি, বিএসপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন রমেশ চন্দ্র, কংগ্রেস  থেকে প্রার্থী হয়েছেন মান্নু দেবী

ঘোসি- বিজেপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন বিজয় রাজভর, এসপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন সুধাকর সিং, বিএসপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন আব্দুল কায়েম, কংগ্রেস থেকে প্রার্থী হয়েছে রামমঙ্গল যাদব


উত্তর প্রদেশে উপনির্বাচনে তিনটি গুরুত্বপূর্ণ আসন 

রামপুর-  রামপপর বিধানসভা কেন্দ্র সমাজবাদী পার্টির নেতা আজম খানের এলাকা বলে পরিচিত। বর্তমানে আজম খান সাংসদ। তিনি এই  এলাকা থেকে নয় বার বিধানসভা নির্বাচনে জয় পেয়েছেন। ১৯৯৩ সাল থেকে এই কেন্দ্রে আজম খান কোনওদিন হারেননি। উত্তর প্রদেশের এই উপনিবর্বাচনে বিজেপি  থেকে প্রার্থী  হয়েছেন ভারত ভূষণ গুপ্তা, এসপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন তানজিন ফাতিমা, বিএসপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন জুবির খান, আরশাদ খান কংগ্রেস । তানজিন ফতিমা আজম খানের স্ত্রী

লখনউ ক্যান্টনমেন্ট - লখনউ ক্যান্টমেন্টে  উপনির্বাচনে  অখিলেশ যাদব অপর্ণা যাদবকে টিকিট দেননি। এবারের লখনউ ক্যান্টনমেন্ট থেকে বিএসপির হয়ে প্রার্থী হয়েছেন আশিষ চতুর্বেদি। তিনি এই এলাকারই বাসিন্দা। ২০১৭ সালে  যাদব পরিবারের ছোট বউ অপর্ণা যাদব  এই কেন্দ্র থেকে বিধানসভা নির্বাচন থেকে লড়াই করেছিলেন। তিনি বিজেপি প্রার্থী রিতা বহুগুনাকে পরাজিত করেছিলেন। 

জালালপুর- এই বিধানসভা নির্বাচন কেন্দ্র বহুজন সমাজপার্টির আসন বলে পরিচিত। গত বিধানসভা নির্বাচনে এই আসন থেকে জয়ী হয়েছিলেন রিতেশ পান্ডে। কিন্তু লোকসভা নির্বাচনে জয় লাভ করে রিতেশ পান্ডে এখন সাংসদ। এই জালালপুর কেন্দ্রে বিজেপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন রাজেশ সিং, এসপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন সুভাষ রাই, বিএসপি  থেকে প্রার্থী হয়েছেন ছায়া বর্মা, কংগ্রেস থেকে সুনীল মিশ্র