মহারাষ্ট্রে সরকার গঠন নিয়ে বিতর্ক আরও উস্কে দিল একটা পোস্টার।  শিবসেনার প্রধান উদ্ধব ঠাকরের বাড়ির সামনে পড়ল একটা পোস্টার। আদিত্য ঠাকরের একটা ছবি দিয়ে নীচে লেখা আছে, 'আমাদের বিধায়ক আমাদের মুখ্যমন্ত্রী।'  শিবসেনা  থেকে না বিজেপি থেকে কে হবেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী এই নিয়ে রাজনৈতিক তরজা একেবারে তুঙ্গে। শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরে  দাবি করেছেন,  মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর পদ ভাগ করা হবে। আড়াই বছরের জন্য মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী হবেন তাঁর ছেলে আদিত্য ঠাকরে। বাকি আড়াই বছরের জন্য হবেন বিজেপির কোনও বিধায়ক। কিন্তু শিবসেনার এই দাবি মানতে নারাজ। পরিস্থিতি যখন জটিল থেকে আরও জটিল হচ্ছে, সেই সময়  মুম্বইয়ে উদ্ধব ঠাকরের বাড়ির সামনে এই পোস্টার দিলেন শিবসেনার সদস্য হাজি হালিম খান। এই পোস্টারের জেরে বিতর্ক যে আরও জোরালো হবে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। 

 

এই মহারাষ্ট্র বিধানসভা নির্বাচনে ওরলি আসন থেকে জয় পেয়েছেন আদিত্য ঠাকরে। শিবসেনা দলের প্রতিষ্ঠাতা পরিবারের প্রথম সদস্য আদিত্য ঠাকরে বিধানসভা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন।  আগেও এই ধরনের একটি পোস্টার শিবসেনা প্রধানের বাড়ির সামনে পড়েছিল। সেখানেও আদিত্য ঠাকরেকে মুখ্যমন্ত্রীর দাবি তোলা হয়। এই পোস্টারে লেখা ছিল, মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী  হবেন কেবল আদিত্য ঠাকরে বলে লেখা ছিল বলে জানা গিয়েছে বৃহন্নমুম্বই মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের তরফে  বৃহস্পতিবার সকালেই এই পোস্টার সরিয়ে নেওয়া হয় বলে জানা গিয়েছে। 

সম্প্রতি শিবসেনা বিধায়ক প্রতাপ সারনায়েক জানিয়েছেন,  যাতে শিবসেনা মহারাষ্ট্রে আড়াই বছরের জন্য সরকার গঠন করতে পারে, সেই বিষয়ে বিজেপির লিখিত আশ্বাস দেওয়া উচিত। সোমবার মহারাষ্ট্রে সরকার গঠন নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া পাওয়া গিয়েছে।  শিবসেনা নেতা সঞ্জয় রাউত জানিয়েছেন,  'শিবসেনা  বিজেপির সঙ্গে জোট করে বিধানসভা নির্বাচন লড়েছে। শেষ পর্যন্ত জোটের সিদ্ধান্তই মাথা পেতে নেওয়া হবে।'