অনেকসময়েই একসঙ্গে থাকতে হলে অনেককিছুই একে অন্যের থেকে নেওয়ার প্রয়োজন পড়ে। সাধারণ কিছু ঘরোয়া সামগ্রীও একে অন্যের থেকে নিয়ে ব্যবহার করার অভ্যেস কম-বেশি সকলেরই রয়েছে। কিন্তু জানেন কী এমন কিছু জিনিস রয়েছে যা অন্যকে দেওয়া বা অন্যের থেকে নেওয়া একেবারেই উচিত নয়, বা তা করলে সাংসারিক জীবনে নেমে আসতে পারে অশান্তির কালো ছায়া। জেনে নিন সেগুলি কী কী।

  • ব্যবহার করা তেল- শাস্ত্রে বলে কখনওই কাউকে ব্যবহার করা তেল দান করা উচিত নয়। এতে নাকি শনিদেবের কুদৃষ্টি পড়তে পারে। প্রয়োজনে কেউ যদি চায় তাহলে তাঁকে ভাল তেল দান করুন, কিন্তু ব্যবহার করা তেল কখনওই দান করবেন না। 
  • স্টিলের বাসন- মনে করা হয় যে কাউকে স্টিলের বাসন দান করলে গৃহে অশান্তি নেমে আসতে পারে। আর যাঁকে দান করা হবে তাঁর সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ হয়ে যেতে পারে। তাই কাউকে কখনওই স্টিলের বাসন দান করা উচিৎ নয়। 
  • ঝাড়ু- কাউকে ঝাড়ু দান করা অশুভ বলে মনে করা হয়। মনে করা হয় কাউকে ঝাড়ু দান করলে গৃহে নেতিবাচক এনার্জি প্রবেশ করতে পারে। এছাড়া ঝাড়ু দান করা হলে মা লক্ষী রুষ্ট হন। ফলে রোজগার কমে যেতে পারে, এবং যাবতীয় সঞ্চয়ও শেষ হয়ে যেতে পারে। 
  • জামাকাপড়- ব্যবহার করা বা পুরনো জামাকাপড় কাউকে কখনওই দান করা উচিত নয়। এতেও আপনার ক্ষতি হতে পারে। এমনকি আপনাপ পরিবারের লোকজনর ওপরও নেমে আসতে পারে বিপদের ছায়া। কারণ এমন কাজ করলে গৃহলক্ষী রুষ্ট হতে পারেন। 
  • বাসি খাবার- রান্না করা বাসি খাবার ভুল করেও দান করা উচিত নয়। এতে বাড়ির পরিবেশ অশান্ত হয়ে ওঠে। অর্থহানিরও আশঙ্কা দেখা দিতে পারে। প্রয়োজনে কাউকে বাড়িতে ডেকে এনে খাওয়াতে পারেন, কিন্তু বাসি খাবার কখনওই দেবেন না। 
  • ধারালো কোনো জিনিস- মনে করা হয় যে, ছুঁড়ি, কাঁচির মতো ধারালো কাউকে জিনিস দান করা হলে তা কখনওই সুখকর হয় না। মনে করা হয় কাউকে ধারালো কোনও জিনিস দেন করলে গৃহে অশান্তির কালো ছায়া গ্রাস করতে পারে। উপরন্তু যাঁকে এইসব জিনিস দান করবেন তাঁর সঙ্গেও সম্পর্কের অবণতি দেখা দিতে পারে।  
  • ধর্মগ্রন্থ- কোনো ধর্মীয় গ্রন্থ যেমন গীতা, কোরান, বাইবেল অথবা অন্য কোনও দেব-দেবীর বই, পাশাপাশি অন্যান্য পড়াশোনার বইও ভুল করেও কাউকে দান করবেন না। এতে মা সরস্বতী রুষ্ট হন। তবে শুধু তাই নয়, ছেঁড়া বই দান করাও একইরকম খারাপ হতে পারে।