সন্তানের মঙ্গল কামনার্থে অনেকেই দেবী ষষ্ঠীর পুজো করে থাকেন। কিন্তু জানেন কী, ষষ্ঠীদেবীর পুজো করার কিছু নির্দিষ্ট পদ্ধতি রয়েছে, যা মেনে চললে মা ষষ্ঠীর কৃপা লাভ করতে পারবেন। দেখে নিন কোন পদ্ধতিতে পুজো করলে ষষ্ঠীদেবীর আশীর্বাদপ্রাপ্ত হবেন। 

ধ্যান মন্ত্র অনুযায়ী, দেবী ষষ্ঠী দ্বিভুজা, বরাভয়দায়িনী, গৌরবর্ণা, অলঙ্কারভূষিতা, দিব্যবসন পরিহিতা, নিত্যা, জগদ্ধাত্রী, সন্তান প্রদা, সর্ব সুলক্ষণ সম্পন্না। মা ষষ্ঠী বামক্রোড়ে পুত্র ধারন করে থাকেন, যা মাতৃত্বের পরিচয়। বলা হয়, সকল মাতৃত্বের গুণ নিয়েই মা ষষ্ঠী আবির্ভূতা হন। মা ষষ্ঠীর ব্রত পালন করা হয় সন্তান প্রাপ্তি ও তাদের মঙ্গল কামনায়। যদিও শাস্ত্র মতে, অনেকগুলি ষষ্ঠী ব্রত পালন করতে দেখা যায়। মূলা ষষ্ঠী, অশোকা ষষ্ঠী, লুন্ঠন ষষ্ঠী, পাটাই ষষ্ঠী, দুর্গা ষষ্ঠী, চাপড়া ষষ্ঠী ইত্যাদি। আর জ্যৈষ্ঠ মাসের জামাইষষ্ঠী এগুলির মধ্যে একটি। মূলত সন্তানের দীর্ঘায়ু, রোগ-শোক হীন জীবন প্রাপ্তির আশায় মায়েরা এই ব্রত করেন। 

সিন্দুর, পঞ্চগুঁড়ি, পঞ্চগব্য, পঞ্চশস্য, আম্রশাখা, ঘট, বটের ডাল, তিল, হরিতকী, পুষ্প, দূর্ব্বা, তুলসী, বিল্বপত্র, ধূপ, দীপ, ধুনা, আসনাঙ্গুরীয়ক, মধুপর্কের বাটী, দধি, মধু, চিনি, নৈবেদ্য, কুচা নৈবেদ্য, ষষ্ঠীর শাটী, মার্কণ্ডেয়ের ধুতি, মন্থনদন্ড, তীর, ধনু, পিটুলি অঙ্কিত হাঁড়ি, পিটুলি অঙ্কিত পুত্তলিকা, শ্বেতসর্ষপ, মাষতলাই, বটের পাতা, পাখা, হরির দ্বাদশ নাম লিখিবার জন্য শুভ্র (শ্বেত) বর্ণের নূতন বস্ত্রখণ্ড, কাঁচাহলুদ, ঘৃতপ্রদীপ, আঁতমরা ফল, লোহা, ঘুনসি, তালপত্র, গোমুন্ডের পূজা, ব্রাহ্মনের পদধূলি, মিষ্টান্ন, পুরোহিতের দক্ষিণা-সহযোগে দেবী ষষ্ঠীর পুজো করলে তিনি খুশি হন। 

কেমন যাবে আজকের দিন, জেনে নিন শনিবারের রাশিফল

ষষ্ঠীর ধ্যান মন্ত্র- ওঁ গৌরাভাং দ্বিভুজাং ষষ্ঠীং নানালঙ্কার-ভুষিতাম্‌। সর্ব্বলক্ষণ-সম্পন্নাং পীনোন্নতপয়োধরাম্‌।। দিব্যবস্ত্রপরীধানাং বামক্রোড়ে সপুত্রিকাম্‌। প্রসন্নবদনাং ধ্যায়েজ্জগদ্ধাত্রীং সুখপ্রদাম্‌।।

প্রণাম মন্ত্র -জয় দেবি জগন্মাতর্জ্জগদানন্দকারিণি।
           প্রসীদ মম কল্যাণি নমস্তে ষষ্ঠী দেবিকে।।