অনেক সংস্কৃতির মধ্যেই জ্যোতির্বিজ্ঞানের ঘটনাকে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। ভারতীয়, চীনা ও মায়া সভ্যতার অধিবাসীগণ মহাকাশ পর্যবেক্ষণের মাধ্যমে পার্থিব ঘটনাগুলির ভবিষ্যদ্বাণী করার জন্য এই বিষয়ের চর্চা এবং উন্নয়ন সাধন করেছিলেন। পশ্চিমে, জ্যোতিষশাস্ত্র প্রায়ই একজন ব্যক্তির ব্যক্তিত্বের ব্যাখ্যা করার জন্য এবং তার জন্মের সময় সূর্য, চন্দ্র, এবং অন্যান্য জ্যোতিষ্কগুলির অবস্থানের উপর ভিত্তি করে তার জীবনের ভবিষ্যদ্বাণী করার জন্য ব্যবহৃত হত। জ্যোতিষশাস্ত্র অতি প্রাচীন এবং এটি বিভিন্ন সময়ে পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে বিভিন্ন সভ্যতার মানবগোষ্ঠির দ্বারা চর্চিত, পরিবর্তিত ও পরিবর্ধিত হয়েছে। তাই কোন একটি বিশেষ সময়কে জ্যোতিষশাস্ত্রের সৃষ্টিকাল হিসেবে চিহ্নিত করা যুক্তিযুক্ত নয়।

আরও পড়ুন- জীবনের জটিলতর সমস্যার সমাধানে, সোমবার মেনে চলুন এই নিয়মগুলি

জ্যোতিষশাস্ত্র মতে, নামের প্রথম অক্ষর দিয়েই ব্যক্তি সম্পর্কে অনেক কিছু জানতে পারবেন অপনি। নামের প্রথম অক্ষর  কিছু না কিছু অর্থ বহন করে। এই একটা অক্ষর দেখে যে কোনও মানুষের সম্পর্কেই অনেক আজানা কথা বুঝে যাওয়া সম্ভব। চরিত্র মানুষের এক অমূল্য সম্পদ। যিনি চরিত্রবান তিনি সমাজে যে কোনও বিরাট সম্পদশালীর চেয়ে বেশি সম্মান পেয়ে থাকেন। চরিত্র মানুষকে দান করে স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য। আজ জানবো সোমবার জন্ম হলে সেই জাতক বা জাতিকাদের চারিত্রিক গুণাবলী।

আরও পড়ুন- সোমবারের সারাদিন কেমন কাটবে আপনার, দেখে নিন রাশিফল

এইদিনে জন্ম যাঁদের তাঁরা ব্যবসায়ে খুবই উন্নতি করেন।
তবে শরীরের দিকেও এই ব্যক্তিদের বেশি করে নজর দেওয়া উচিৎ।
সোমবারে জন্ম যাঁদের, তাঁদের ব্যবহারও খুব সুন্দর হয়ে থাকে। 
সোমবারে জন্মগ্রহণকারী ব্যক্তিরা সদা হাস্যমুখ হয়ে থাকেন। 
এই দিনে জন্মানো ব্যক্তিদের সাদা রং খুবই শুভ।
এরা সর্বদাই যে কোনও ধরণের কাজ করার মানসিকতা রাখেন।
সোমবার জন্মগ্রহণকারী ব্যক্তিরা প্রেমের বিষয়ে খুব সচেতন থাকেন। 
এরা যে কোনও ধরণের সমস্যা সামলে নেওয়ার মতো মানসিকতা রাখেন। পাশাপাশি কঠিন পরিস্থিতিতে মোকাবিলা করার মতো মনের জোর থাকে এদের।
 সোমবারে জন্মগ্রহণকারী ব্যক্তিরা বুদ্ধিমান, সাহসী এবং সৃজনশীল প্রকৃতির হয়ে থাকেন।
এরা কাউকে ভালোবাসলে কোনওদিনও তাঁর সঙ্গ ছাড়েন না। দাম্পত্য জীবনও ভাল মন্দ মিশিয়ে কেটে যায়।