সুপ্রাচীন সমুদ্র শাস্ত্রে শরীরের বিভিন্ন অংশে তিল দেখে ভাগ্য নির্ধারণের পদ্ধতির কথা বর্ণিত আছে। এইভাবে শরীরের বিভিন্ন অংশে থাকা তিলের আকৃতি, বর্ণ, রঙ দেখে একজন মানুষের চারিত্রিক বৈশিষ্ট, প্রকৃতি, তাঁর ব্যক্তিজীবন ইত্যাদি জানা যায়। আসুন জেনে নেওয়া যাক, শরীরের কোন অংশে তিল থাকলে তা কী ইঙ্গিত বহন করে।

ঠোঁট-  এমন মানুষরা জীবনে সবসময় সামনের দিকে তাকাতে পছন্দ করেন। আর ঠোঁটে তিল থাকলে সে মানুষ কথা বলতে ও খেতে বেশ ভালবাসেন। তবে এর পাশাপাশি ঠোঁটে তিল থাকা মানুষরা একাধিক ব্যক্তির সঙ্গে যৌন সম্পর্ক করে থাকেন। 

চোখ- পুরুষের চোখের কোলে তিল থাকার অর্থ, তিনি খুবই সুপুরুষ।  কিন্তু এঁরা বিয়ের পর স্ত্রীয়ের সঙ্গে বিবাদে জড়িয়ে পড়েন বারবার। 

নাক - নাকের মধ্যভাগে তিল থাকার অর্থ ওই ব্যক্তি যৌন সম্পর্কে অপটু। এর ফলে বিয়ের পরে সমস্যা দেখা দিতে পারে। নাকের মাঝখানে তিল থাকলে তা অবিলম্বে সরিয়ে ফেলার ব্যবস্থা করুন। তবে তিল যদি থাকে দুই চোখের মাঝ বরাবর অর্থাৎ নাকের একেবারে উপরিভাগে, তাহলে বলা হয় সেই ব্যক্তির চারিত্রিক দোষ রয়েছে। এইরকম মানুষ বিপরীত লিঙ্গের মানুষের প্রতি খুব সহজেই আকৃষ্ট হয়ে পড়ে। 

কান- কানের পেছনে তিল থাকলে ওই ব্যক্তি খুবই সাংসারিক প্রকৃতির হয়ে থাকেন। তিনি তাঁর স্ত্রী বা স্বামীর প্রতি খুবই কর্তব্য পরায়ণ হয়ে থাকেন। তিনি সারাজীবন তাঁর কর্মের জন্য সারা জীবন ধরে সৌভাগ্য বহন করে থাকেন। 

আজ কী হবে আপনার সৌভাগ্যের চাবিকাঠি- জেনে নিন আজকের রাশিফল

বাহু- বাহুতে তিল থাকলে সেি ব্যক্তি খুবই সুখী হয়ে থাকেন। সকলের সঙ্গে তাঁর ব্যক্তিগত সম্পর্ক এবং বৈবাহিক সম্পর্কও খুব সুখের হয়। 

গাল- গালে তিল থাকার অর্থ সেই ব্যক্তি খুবই বুদ্ধিমান এবং মেধাবী। তবে এঁরা খুব সহজেই নিজের মেজাজ হারিয়ে ফেলেন, যার ফলে বিপত্তি ডেকে আনতে পারে। 

বক্ষ- কোনও ব্যক্তির বয়ঃসন্ধির পরে যদি বক্ষে তিল দেখা দেয়, তাহলে তার অর্থ সেই ব্যক্তির নিজের ব্যক্তিজীবনে খুবই সুখী হবেন।  

কপাল- কপালে তিল থাকা মানে তাঁর ওপর বৃহস্পতির প্রাধান্য রয়েছে। তবে এই সৌভাগ্য অবশ্যই তিলের অবস্থানের উপর নির্ভর করে। কপালের মাঝে তিল থাকলে বুদ্ধির বিকাশ হয় বলে মনে করা হয়। কপালের ডানদিকে তিল থাকলে সেই ব্যক্তি খুব ভালো জীবনসঙ্গী হয়ে থাকেন। আর কপালের বাঁদিকে তিল থাকার অর্থ আপনি খুবই ভাগ্যবান।