পাঁচ দিনব্যাপী দীপাবলির উৎসব শুরু হয় ধনতেরাসের দিন ত্রয়োদশীর থেকেই। এর পর চলবে দীপাবলির সময় চতুর্দশী, অমাবস্যা ও প্রতিপদের দিন সেই সঙ্গে ভাইফোঁটাও। এই সময় চতুর্দশীর দিন রয়েছে অন্য আরেক উৎসব যা অভয়াং স্নান নামে পরিচিত। চতুর্দশীর দিনে অভয়াং স্নান, যা নরক চতুর্দশী নামে পরিচিত, এটি সর্বাধিক উল্লেখযোগ্য। অনেকেই বিশ্বাস করেন এই দিনটিতে অভয়াং স্নান করলে, নরকে যাওয়া এড়াতে পারেন। তাই এই স্নানের সময় তিলের তেল ব্যবহারের নিয়ম আছে। বিশেষ সময়ে গঙ্গায় বা কোনও পবিত্র জলাশয়ে এই স্নান করার পরামর্শ দেন জ্যোতিষীরা।

আরও পড়ুন- জানেন কি কত রূপে পূজিত হন মা কালী, দেখে নিন মায়ের বিভিন্ন রূপ

 নরক চতুর্দশী বা অভয়াং স্নান চতুর্দশী তিথি যখন সূর্যোদয়ের আগে বিরাজ করে এবং অমাবস্য তিথি সূর্যাস্তের পরে বিরাজ করে তখন নরক চতুর্দশী এবং লক্ষ্মী পুজো, কালীপুজো একই দিনে পড়ে। এই উৎসব রূপ চৌদাস নামেও পরিচিত। তবে সূর্যোদয়ের আগে যখন চতুর্দশী তিথি পড়লে অভয়াং স্নান সর্বদা চন্দ্রোদয়ের সময় করা উচিৎ।  অভয়াং স্নানের শুভ তিথি হিসেবে মনে করা হয় চন্দ্র উদয় ও সূর্যোদয়ের মধ্যে চতুর্দশী তিথিতে। 

আরও পড়ুন- বাস্তুর নিয়ম মেনে কীভাবে পালন করবেন ভাইফোঁটা, জেনে নিন

আরও পড়ুন- ভাইফোঁটা কড়ে আঙুল দিয়েই কেন দেওয়া হয় জানেন কি

নরক চতুর্দশীর দিন দীপাবলি, রূপ চতুর্দশী এবং রূপ চৌদাস নামেও পরিচিত। এই একই তিথিতে উভয় এই উৎসব পালন করা হয়। তবে এই চতুর্দশী তিথি শুরু এবং শেষ হওয়ার সময়ের উপর নির্ভর করে যে এই উভয় উৎসব দুটি একই দিনে পড়বে কি না।