এই বছরের একইসঙ্গে এই দশকের শেষ সূর্যগ্রহণ দৃশ্যমান হবে ২৬ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার। চাঁদ যখন পরিভ্রমণরত অবস্থায় কিছু সময়ের জন্য পৃথিবী ও সূর্যের মাঝখানে এসে পড়ে, তখন পৃথিবীর কোন দর্শকের কাছে সূর্য আংশিক বা সম্পূর্ণরূপে অদৃশ্য হয়ে কিছু সময়ের জন্য। এই ঘটনাকে সূর্যগ্রহণ বলা হয়। অমাবশ্যার পরে নতুন চাঁদ উঠার সময় এ ঘটনা ঘটে।  

আরও পড়ুন- নতুন বছরে ব্যবসায় হোক উন্নতি, বাস্তুমতে সাজিয়ে নিন বিজনেস কার্ড

দশক শেষের এই সূর্যগ্রহণের প্রভাব পড়বে বিভিন্ন রাশিগুলির উপর। সূর্য গ্রহণের নেতিবাচক প্রভাবগুলি পড়বে ধনু এবং মূল নক্ষত্রের ব্যক্তিদের উপর। এছাড়া যাদের জন্মলগ্নে জেষ্ঠা নক্ষত্র এবং পূর্বাষাঢ়া নক্ষত্রে তাঁদের উপ এই সূর্যগ্রহণ ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে। যাঁদের জন্মকুণ্ডলী তে গ্রহণের যোগ রয়েছে তাঁদের এই সময় সাবধানে থাকা উচিত। তাই সূর্যগ্রহণের এই নেতিবাচক প্রভাব এড়াতে মেনে চলুন এই নিয়মগুলি এবং কাটিয়ে উঠুন সমস্ত বাধা।

আরও পড়ুন- নতুন বছরে কেমন হবে তুলা রাশির কর্মজীবন, জেনে নিন

 

সূর্যগ্রহণের অশুভ প্রভাব এড়াতে হনুমান চল্লিশা পাঠ করুন।
মনে মনে ইষ্টদেবতার স্মরণ করুন।
সকাল বেলায় সূর্য দেবতার প্রণাম মন্ত্র যপ করুন, কাটিয়ে উঠুন সমস্ত বাধা।
গ্রহণ শুরু হওয়ার আগে শিবের পুজো করুন। শিবলিঙ্গে সাদা চন্দন দিয়ে অভিষেক করুন। গ্রহণ শেষ হওয়ার পর শিবলিঙ্গে গঙ্গাজল ঢেলে পুজো করুন।
গ্রহনের সময় গায়ত্রী মন্ত্র জপ করুন। এর সাহায্যে সমস্ত সমস্যা কাটিয়ে উঠতে পারবেন। 
গ্রহণ চলাকালীন আপনার রাশি চক্রের অধিকর্তা দেবতার মন্ত্রও জপ করতে পারেন।
ধনলাভের জন্য রাশি অনুযায়ী লক্ষ্মীমন্ত্র জপ করুন। এর ফেল লক্ষ্মীদেবীর কৃপা আপনার উপর বজায় থাকবে।