সবই ঠিকঠাক, অথচ বিয়ের সময়কাল ঘনিয়ে আসার পরও বিয়ে হচ্ছে না। নানা কারণ বশত বাধার সৃষ্টি হচ্ছে। ফলেই পরিবারের গুরুজনদের মাথায় হাত। কীভাবে বিয়ে দেওয়া যায়। সংস্কার থেকে কুসংস্কার বাদ পরে না কিছুই। এই অবস্থায় বাস্তুর কথা একবার ভেদে দেখা উচিত। কারণ বাস্তু অনুযায়ী বিবাহের সমস্যা দেখা যায় অনেকেরই। তাই বাড়ির বাস্তু কতটা বিবাহের পক্ষে তা জেনে রাখা প্রয়োজন। তাহলে আটটি উপায় কাটিয়ে ফেলা যেতে পারে বিবাহের বাধা।

আরও পড়ুনঃ লেখাপড়ায় মনযোগের অভাব! বাস্তুশাস্ত্র মতে মেনে চলুন এই টোটকা, ফল পাবেন হাতেনাতে

জেনে নিন আটটি টিপসঃ 
১. বাড়ির দক্ষিণ-পশ্চিম কোণ সামান্য উঁচু করে রাখুন। এতে বিয়ের সম্ভাবনা বেড়ে যায়। নইলে সমস্যা বাড়তে পারে।
২. বাড়ির দক্ষিণ-পশ্চিম কোণে কোনও জলাশয় রাখা উচিত নয়। তা থেকেও বাড়তে পারে সমস্যা। মনের মতন পাত্রপাত্রী পাওয়া যায় না।
৩. বাড়ির দক্ষিণ-পশ্চিম কোণে যেন ঢালু কিছু না থাকে। সে জানলার কার্ণিশই হোক বা দেওয়াল। এতে বিবাহ যোগ কমে যায়।
৪. বিবাহ যোগ্য মেয়েদের শোওয়ার ঘর কখনই দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে থাকা উচিত নয়। এতে বিবাহে সমস্যা বাড়তে পারে।
৫. অবিবাহিত মেয়েদের শোওয়ার ঘরের দরজা দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে হওয়া উচিত নয়। এতে সমস্যা আরও বেড়ে যায়।
৬. শোওয়ার ঘরের বিছানার চাদর খুব হালকা রঙের হওয়া উচিত। এতে মনে শান্তি বজায় থাকেও। বিয়ের বিষয়ও সচেতনতা বাড়ে।
৭. অবিবাহিত ছেলেদের ঘর বাড়ির উত্তর পশ্চিম কোণে করা উচিত। এতচে বিবাহের বাধা অনেকটা কমে যায়।
৮. দক্ষিণ-পশ্চিমে মাথা দিয়ে শুলে ছেলে মেয়েদের সমস্যা আরো বৃদ্ধি পায়।