Asianet News Bangla

বাড়িতে লাফিং বুদ্ধ থাকলে মেনে চলুন সঠিক নিয়মগুলি, নাহলে ফল হতে পারে উল্টোটাই

  • অনেকের বাড়িতেই লাফিং বুদ্ধর মূর্তি চোখে পড়ে
  • এই মূর্তি যেমন তেমন ভাবে রাখা যায় না
  • সে ক্ষেত্রে ফল হতে পারে উল্টোটাই
  • রইল লাফিং বুদ্ধ রাখার সঠিক নিয়মগুলি
Follow the actual rules to keep a laughing buddha at home according to feng shui
Author
Kolkata, First Published Feb 8, 2020, 12:01 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

চীনা জ্যোতিষ বা ফেং সুই মেনে অনেকের বাড়িতেই লাফিং বুদ্ধর মূর্তি চোখে পড়ে। তবে এই মূর্তি যেমন তেমন ভাবে রাখা যায় না। সে ক্ষেত্রে ফল হতে পারে উল্টোটাই। লাফিং বুদ্ধ বা বুদাই একদন চীনা লোক দেবতা। চিনের লৌকিক কাহিনি অনুযায়ী, লাফিং বুদ্ধ বা বুদাই নামের অর্থ কাপড়ের বস্তা। আর এই নাম সাধারণত তার কাপড়ের উপর ফুটিয়ে তুলা হয়েছে বলে। তাকে সাধারণত বুদ্ধের অবতার মৈত্রেয় বা ভবিষ্যৎ বুদ্ধ বলে গণ্য করা হয়। তাকে সকল সময় হাসিমুখে থাকতে দেখা যায়, সেজন্যে চীনা ভাষায় তাকে হাসিমুখো বুদ্ধ লাফিং বুদ্ধ বলা হয়।

আরও পড়ুন- মাঘী পূর্ণিমায় পালন করুন বিশেষ এই রীতি, বাধা কাটিয়ে ফিরে পান অর্থভাগ্য

ধনদৌলতের দেবতা কুবেরের মতো লাফিং বুদ্ধকেও অনেকে সাফল্যের প্রতীক বলে মনে করা হয়। এই জন্য অনেকেই বাড়িতে বা কর্মস্থলে লাফিং বুদ্ধার মূর্তিও রেখে থাকেন। বুদাইকে সাধারণত একজন স্থূল, টাক মাথার এবং পড়নে ঢিলাঢালা প্রার্থনার পোশাক পরিহিত ব্যক্তি হিসেবে উপস্থাপন করা হয়। তার অবয়ব আত্মসন্তুষ্টির প্রতীক হিসেবে প্রায় চীনা সংস্কৃতির সকল ক্ষেত্রেই দেখা যায়। চীনা ইতিহাস মতে, বুদাই একজন বৌদ্ধ ভিক্ষু ছিলেন। যিনি লিয়াং সাম্রাজ্যের সমসাময়িক চিনে বাস করতেন। তিনি চচিয়াং এর স্থানীয় বাসিন্দা ছিলেন এবং তার বৌদ্ধ নাম কিয়েইচি ছিল। তিনি একজন সৎ এবং স্নেহশীল প্ৰকৃতির লোক ছিলেন। যা পরবর্তীকালে প্রচলিত ধারণায় পরিনত হয়। সেই মতে, লাফিং বুদ্ধ মূর্তি বাড়িতে রাখলে বাস্তুর উন্নতি হয়। তবে এই মূর্তি শুধুমাত্র বাড়িতে রাখলেই নয়, মেনে চলতে হয় কিছু নিয়ম। যা ভুল হলে ফল হতে পারে বিপরীত। তাই জেনে নেওয়া যাক বাড়িতে বা কর্মক্ষেত্রে লাফিং বুদ্ধ রাখার সঠিক নিয়মগুলি।

আরও পড়ুন- ফেব্রুয়ারি মাস কেমন প্রভাব ফেলবে মিথুন রাশির উপর, দেখে নিন  

ভ্রান্ত ধারণা অনুযায়ী, মাটির তৈরি লাফিং বুদ্ধর মূর্তি কেনা শুভ। তবে এই ধারণা একেবারেই ভুল। ফেংশুই মতে, পিতলের তৈরি মূর্তি কিনলেও একই ফল পাওয়া সম্ভব। কর্মস্থলে লাফিং বুদ্ধর মূর্তি রাখার সময় মজর রাখতে হবে, যেন মূর্তির উচ্চতা চোখের দৃষ্টির উপরে না যায়। বাড়িতে লাফিং বুদ্ধর মূর্তি রাখতে হলে বাড়ির সদর দরজার দিকে মুখ করে  রাখলেই হবে। লাফিং বুদ্ধর মূর্তি কখনও নিজে কিনে বাড়িতে বা কর্মস্থলে রাখা উচিত নয়। সেক্ষেত্রে সুফল পাওয়া যায় না। বরং উপহারে পাওয়া মূর্তিই বাড়িতে সমৃদ্ধি বহে আনে।  লাফিং বুদ্ধর মূর্তি সবসময় ঘরের উত্তর দিকে মুখ করে রাখা উচিত। এতে পরিবারের সদস্যদের মধ্যে ভাব-ভালবাসা আরও নিবিড় হয়। বাচ্চাদের সঙ্গে বসে আছেন লাফিং বুদ্ধ এমন মূর্তি বাড়িতে রাখা খুবই শুভ। 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios