স্থাপত্য উপবেদ আবার অথর্ববেদ থেকে এসেছে। প্রায় ৫০০০ বছর ধরে বাস্তুবিদ্যা কালের বিরুদ্ধে নিরন্তর সংগ্রামে জয়ী হয়েছে। স্থাপত্য উপবেদ বা স্থাপত্য শাস্ত্রের সূত্রগুল পরবরতিকালে 'বাস্তুশাস্ত্র' শিরোনামে লিপিবদ্ধ হয়েছে। বৈদিক যুগে স্থাপত্য বিজ্ঞান মূলত মন্দির নির্মাণে ব্যবহৃত হত। পরবর্তীতে তা বিস্তার লাভ করে। প্রাচীন যুগে স্থপতিরা কেবল নিছক রাজমিস্ত্রির ভূমিকা পালন করতেন না, নির্মাণশৈলী ও পরিকল্পনার বিষয়টিও তদারক করতে হত তাঁদের। একইভাবে বর্তমানকালে বাস্তু গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আমাদের দৈনন্দিন জীবনে। আপনার পরিবারের ক্ষুদ্রতম সদস্যের ঘরটিও সাজিয়ে তুলুন বাস্তুমতে। ঠিক কীভাবে পোষ্যরা ফিরিয়ে আনতে পারে সৌভাগ্য জেনে নেওয়া যাক-

আরও পড়ুন- এই মাসে চাকরির প্রাপ্তিযোগ রয়েছে এই রাশিগুলির, দেখে নিন সেই তালিকা

বাস্তুশাস্ত্র, এই বাস্তু শব্দটি এসেছে বস্তু থেকে। বাস্তু বলতে সব কিছুকেই বুঝায়- তা একটি স্থান হতে পারে- কিংবা একটা বাড়িও হতে পারে। ভারত উপমহাদেশে প্রায় সভ্যতার সূচনালগ্ন থেকে স্থাপত্য নির্মাণকে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। সভ্যতার শুরু থেকেই ভারতীও উপমহাদেশে শিল্পচর্চাকে ঊর্ধ্বে স্থান দেয়া হয়েছে। স্থাপত্যশৈলী উপবেদের অন্যতম বিষয়। স্থাপত্য উপবেদ বা স্থাপত্যশাস্ত্র চারটি উপবেদের অন্যতম। আজকের দিনে অনেকেই পছন্দের কোনও প্রাণী পোষ্য হিসেবে বাড়িতে রাখছে। চিকিৎসকদের মতে, তাতে নাকি স্ট্রেস-এর পরিমাণ কিছুটা হলেও কমে। তবে বাস্তুশাস্ত্রে এমন কিছু পশু-পাখী রয়েছে যাদের বাড়িতে পোষ্য হিসেবে রাখলে সংসারের শ্রীবৃদ্ধি হবে। এমনকি কেটে যাবে যাবতীয় অশুভ ছায়া। বাস্তু অনুযায়ী, রইল এমন কিছু পশু-পাখীর খোঁজ যারা বাড়িতে থাকলে আপনার জীবনে কেবলই বিরাজ করবে শুভ সময়। 

আরও পড়ুন- এই মাস কেমন প্রভাব ফেলবে সিংহ রাশির উপর, দেখে নিন

পায়রা- বাড়ির ছাদে পায়রা বসলে তা কখনও উড়িয়ে দেবেন না। শুধু তাই নয় গৃহে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির আনতে আজই বাড়িতে নিয়ে আসুন এক জোড়া পায়রা। কারণ বাস্তুশাস্ত্রে এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে এই পাখিটিকে বাড়িতে রাখলে পারিবারের অন্দরে অশান্তি মাথা চাড়া দিয়ে ওঠার আশঙ্কা হ্রাস পায়। সেই সঙ্গে অর্থনৈতিক নানাবিধ সমস্যাও কমতে শুরু করে।

খরগোস- এই প্রাণীটির বাড়িতে থাকা খুবই শুভ! শুধু তাই নয়, বাস্তু মতে বাড়িতে খরগোস পুষলে সেই পরিবারে সুখ-সমৃদ্ধিতে ভোরে ওঠে। সেই সঙ্গে বলা হয়, পরিবারে কারও থাইরয়েডের সমস্যা থাকলে তাও কমতে শুরু করে। 

আরও পড়ুন- সোমবারের সারাদিন কেমন কাটবে আপনার, দেখে নিন রাশিফল

কুকুর- পোষ্য হিসেবে খুবই জনপ্রিয়। কারণ বাড়িতে কোনও প্রাণী পোষার কথা মাথায় এলে সবার প্রথম এর কথাই মনে আসে। এরা পরিবারকে নিরাপত্তা দেওয়ার পাশাপাশি সুখ-সমৃদ্ধির আগমণ ঘটাতে বিশেষভাবে সাহায্য করে। একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে যে কুকুরের গায়ে থাকা বেশ কিছু ব্যাকটেরিয়া মানব শরীরে প্রবেশ করার ফলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে এতটা শক্তিশালী করে তোলে যে ছোট-বড় কোনও রোগই ধারে কাছে ঘেঁষতে পারে না।

মাছ- বাস্তু শাস্ত্রের উপর লেখা একাধিক বইতে এর উল্লেখ পাওয়া যায় যে, বাড়িতে মাছ রাখলে খারাপ শক্তি গৃহস্থের অন্দরে প্রবেশ করতে পারে না। ফলে সৌভাগ্য সর্বদা আপনার সঙ্গে বিরাজ করে। সেইসঙ্গে এমনটাও বিশ্বাস করা হয় যে যেসব মাছ বেজায় ছটফটে, যেমন গোল্ড ফিশ, তেমন মাছ বাড়িতে এনে রাখলে বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা হ্রাস পায়। সেই সঙ্গে স্ট্রেস লেভেলও কমতে শুরু করে।