জাতকের জন্ম সময়, তারিখ এবং জন্মস্থানের ভিত্তিতে, জন্মকালে মহাকাশে গ্রহের অবস্থান নিরুপণ করে অথবা প্রশ্নের সময় গ্রহাদির অবস্থান নির্ণয় করে, অথবা হস্তরেখাবিচার, শরীরের চিহ্নবিচার ইত্যাদি বিভিন্ন পদ্ধতির ব্যবহারে প্রশ্নকর্তার ভবিষ্যতের গতিপ্রকৃতি নির্ধারণ করার জ্ঞান ও পদ্ধতিকে জ্যোতিষশাস্ত্র বলা হয়। আবার জ্যোতিষশাস্ত্রের একটি বিভাগ দেশ, রাজ্য, শহর, গ্রাম ইত্যাদির এবং প্রাকৃতিক ঘটনাবলীর যেমন বৃষ্টি, অতিবৃষ্টি, অনাবৃষ্টি, ভূমিকম্প, ঝড়, ঝঞ্ঝা, মহামারী বা প্লাবণের ভবিষ্যদ্বাণী করতেও ব্যবহৃত হয়।

আরও পড়ুন- সৌভাগ্য ফেরাতে বেডরুমে বা লিভিংরুম গুছিয়ে নিন, মেনে চলুন বাস্তুর এই নিয়মগুলি

এই জাতক বা জাতিকার জন্মমাস হল চৈত্র। মীনলগ্নে রবি থাকার মানে হল অর্থ ষষ্ঠ অধিপতি লগ্নে আছে। রবি এই লগ্নে থাকলে জাতক বা জাতিকা খুব আবেগপ্রবণ, অনুভুতি প্রবণ ও সব সময়েই পঞ্চইন্দ্রিয়কে নানান কাজে এরা নিযুক্ত রাখতে সক্ষম। চিকিৎসা, শিল্প, সাহিত্য, প্রেস বিভাগে কাজ এরা উন্নতি করে। এরা উদার, পরোপকারী ও সৎ হয়। মানসিক অস্থিরতা থাকায় এদের প্রতিভা ঠিকমতো বিকশিত হয় না। অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে গিয়ে জীবনে অনেক বার বিপদে পড়তে হয়। প্রেমের ক্ষেত্রে অসফল কিন্তু বৈবাহিক জীবন সুখের হয়। ভাগ্যে অনেক বাধা আসবে এবং সে সব সহজে দূর হবে না। এই লগ্নের জাতক-জাতিকাদের বিদেশ ভ্রমণ যোগ থাকে। কিন্তু জলপথে বিপদের সম্ভবনাও বেশি। 

আরও পড়ুন- এই মাস কেমন প্রভাব ফেলবে তুলা রাশির উপর, দেখে নিন

মীন রাশির দ্বিতীয় পতি মেষ রাশির অধিপতি মঙ্গল যদি শুভ ভাবে গ্রহের যুক্তি বা দৃষ্টিতে থাকে, তা হলে আত্মীয়স্বজনের ক্ষেত্রে শুভ ফল পাওয়া যায়।  শশুরবাড়ির আত্মীয়দের সঙ্গে মৌখিক সখ্যতা থাকে। এরা সাধারণত যে কোনও ব্যক্তি বা সম্পর্ককে জটিলভাবে বিশ্লেষণ করে বলে এঁদের সঙ্গে সাধারণত কারও স্বার্থহীন সম্পর্ক গড়ে ওঠা সম্ভব নয়। কর্মক্ষেত্রে উন্নতিযোগ থাকলেও পদে পদে বাধা থাকে। ব্যবসার দিকেও এদের ভাগ্য সুপ্রসন্ন। বিদ্যা স্থানও এদের খুব ভালো। কিন্তু এঁরা কিছুটা স্পষ্টভাষী হওয়ায় অনেক ক্ষেত্রেই বহু আত্মীয় এঁদের অপছন্দ করেন। এঁদের আত্মীয়স্থান শুভাশুভ মিশ্রিত হয়। এঁরা নিজেরাই সকলের সঙ্গে একটু দূরত্ব রেখে মেলামেশা করে। তবে নিজের বাবা-মায়ের প্রতি এঁদের গভীর আস্থা ও ভালবাসা থাকে।