সোমবার পুনর্বসু নক্ষত্রে মধ্যে প্রবেশ করেছে সূর্য। এর আগে অবধি সূর্য ২২ জুন থেকে আর্দ্র নক্ষত্রে ছিল। পুনর্বসু নক্ষত্রের সূর্য আসার সঙ্গে সঙ্গে অতিবৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। পাশাপাশি রোগ বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে। জ্যোতিষশাস্ত্রের মতে, সূর্য পুনর্বসু নক্ষত্রে আছে কিন্তু মিথুন রাশিতে রাহুর সঙ্গে যোগ তৈরি হয়েছে।  গ্রহের এই অশুভ অবস্থান থাকবে ১৫ জুলাই পর্যন্ত। এই যোগ আবহাওয়া, দেশ, বিশ্ব এবং সমস্ত রাশিচক্রকে প্রভাবিত করবে। এই প্রভাবের কারণে, বৃষ, কন্যা, বৃশ্চিক, ধনু, কুম্ভ এবং মীন রাশির অসুবিধা বাড়তে পারে। মেষ, মিথুন এবং সিংহ রাশির ব্যক্তিরা অশুভ প্রভাব থেকে রক্ষা পাবেন। এগুলি ছাড়াও কর্কট, তুলা এবং মকর রাশির লোকদের জন্য প্রভাব মিশ্র থাকবে।

কুম্ভ রাশি সহ ৬ রাশির জন্য অশুভ সময়-

পুনর্বসু নক্ষত্রমণ্ডলে সূর্যের প্রবেশের কারণে বৃষ, কন্যা, বৃশ্চিক, ধনু, কুম্ভ এবং মীন রাশির সমস্যা বাড়াতে পারে। এই ৬ রাশির নিজেদের প্রতি যত্নবান হতে হবে। কাজকর্মে বাধা থাকতে পারে। বিবাদ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। অর্থ ক্ষতি এবং স্বাস্থ্য সমস্যাও দেখা দিতে পারে। নতুন কাজ শুরু করা এড়ানো উচিত। ঋণ নেবেন না, কাজের ক্ষেত্রে অসতর্কতা ও তাড়াহুড়িও এড়ানো উচিত।

মেষ, মিথুন এবং সিংহ রাশির জন্য ভাল সময়-

এই যোগের ফলে এই তিন রাশির জন্য ভাল সময় । এই রাশির লোকেরা চাকরি এবং ব্যবসা ভালো ফল পেতে পারেন। সম্পত্তি ও আর্থিক বিষয় উপকারী হতে পারেন। স্বাস্থ্যের জন্য সময়টি উত্তম হবে। ভাগ্য আপনার সঙ্গে থাকবে। পারিবারিক বিষয়ে সময়কে শুভও বলা যেতে পারে। এই রাশির উপর বিদ্যমান অশুভ গ্রহের প্রভাব পড়বে না।  

মিশ্র সময় কর্কট, তুলা এবং মকর রাশির-

কর্কট, তুলা এবং মকর রাশির লোকদের জন্য মিশ্র সময় থাকবে যখন সূর্য পুনর্বসু নক্ষত্রে প্রবেশ করবে। এই ৩ রাশির জাতকরা উপকৃত হবেন, তবে ব্যয়ও বহন করা হবে। কিছু ক্ষেত্রে, এই যোগের সমর্থন থাকবে, অন্যদিকে কাজ, উত্তেজনা এবং বিতর্কে বাধা হওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে। স্বাস্থ্য সমস্যাও দেখা দিতে পারে।

অশুভ প্রভাব এড়াতে কী করবেন-

পুনর্বসু নক্ষত্রের সঙ্গে সূর্যের অশুভ প্রভাব এড়াতে জলে লাল চন্দন যোগ করুন এবং তামার পাত্র দিয়ে সূর্যের উদ্দেশ্যে নিবেদন করুন। রবিবার ও সপ্তমী তিথিতে একবেলা আহার গ্রহণ করুন, নুন ছাড়াই ব্রত রাখতে হবে। একটি তামার পাত্রে গম ভর্তি করে দুঃস্থদের দান করুন। লাল পোশাক দান করতে পারেন। ডান হাতে একটি তামার আংটি বা ব্রেসলেট পরুন। লাল চন্দন কাঠ দিয়ে কয়েক ফোঁটা জলে নিয়ে স্নান করুন। প্রতিদিন সূর্যোদয়ের আগে স্নান করুন এবং সূর্যকে প্রণাম করুন।