শনিবার, ১৮ এপ্রিল বৈশাখ মাসের কৃষ্ণপক্ষের একাদশী। একে বলা হয় বরুথিনী একাদশী। এই দিনে ভগবান বিষ্ণুর উপাসনা করা উচিত । এছাড়াও শনির জন্য বিশেষ উপাসনা করা উচিত। জ্যোতিষশাস্ত্রের মতে, শনির দোষ দূর করতে শনিবার হনুমানের সামনে প্রদীপ জ্বালিয়ে হনুমান চলিশা পাঠ করা উচিত। শনিবার হনুমানজির উপাসনায় কী কী রাখা উচিত তা জেনে নিন।

আরও পড়ুন- বৈশাখ মাস কেমন প্রভাব ফেলবে মেষ রাশির উপর, দেখে নিন

শনিবার ভোরে উঠে হনুমানজির উপাসনা করুন। পুজায় প্রসাদ হিসাবে সম্ভব হলে গুড়, নারকেল ও লাড্ডু দিন। বিকেলে গুড়, ঘি, গমের ময়দা দিয়ে তৈরি রুটি মিশ্রণ এবং সন্ধ্যায় কলা, আপেল ফল দিয়ে পুজো দেওয়া উচিত।

হনুমানজিকে বস্ত্রপ দেওয়ার সময় জুঁইয়ের তেলে সিঁদুর মিশিয়ে নৈবেদ্য অর্পণ করুন। পূজা করা ব্যক্তির উচিত ব্রহ্মচর্য অনুসরণ করা। ঘরে পরিষ্কার রাখুন। ঘরের কোথাও ময়লা রাখবেন না। শরীর ও মন সুদ্ধ করে তবে পুজো দিন।

আরও পড়ুন- তুলা রাশির আজ সমাজ সেবায় সুনাম বৃদ্ধি পেতে পারে, দেখে নিন আপনার রাশিফল

বিশেষ করে লাল বা হলুদ ফুল দিয়ে হনুমানের পুজো করুন। পদ্ম, গাঁদা, গোলাপ ইত্যাদির এই ফুলগুলিতে বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে। হনুমানজিকে জাফরান দিয়ে লাল চন্দনের তিলক লাগান। পুজো শেষে প্রদীপ জ্বালিয়ে হনুমান চালিশা পাঠ করুন।

'ওম রামদূতয় নমঃ' মন্ত্র জপ কমপক্ষে ১০৮ বার জপ করা উচিত। যে ব্যক্তি হনুমানজির উপাসনা করেন, তার উচিত সমস্ত মহিলাকে সম্মান করা। কোনও মহিলার প্রতি ভুল ধারণা মনে রাখবেন না। আজকের এই বিশেষ তিথিতে বজরঙ্গবলির পুজো করুন, আর জীবনে ফিরিয়ে আনুন সুখ ও সমৃদ্ধি।