আমরা প্রত্যেকেই আমাদের ভিজিটিং কার্ড নিয়ে যথেষ্ট যত্নশীল। ভিজিটিং কার্ড যেমন আমাদের পরিচয়ের সঙ্গে সঙ্গে ব্যক্তিত্ব তুলে ধরে। তেমনই অন্য যে কোনও নতুন সম্পর্ক বানাতেও সাহায্য করে। তবে হ্যাঁ শুধু ভিজিটিং কার্ড বানালেই হয়না, তারও একটা নিয়ম রীতি আছে। আর বাস্তুমতে ভিজিটিং কার্ড তৈরি করলে তার সুদূরপ্রসারী প্রভাব মেলে। আপনার ভিজিটিং কার্ড এর মাধ্যমে যে নতুন সম্পর্ক গুলি তৈরি হয়,সেগুলি আরও সুন্দরভাবে গড়ে ওঠে। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক,ভিজিটিং কার্ড তৈরির ক্ষেত্রে  বাস্তুরীতি অনুযায়ী কি কি পদ্ধতি মেনে চলা উচিত-     

১) ভিজিটিং কার্ড তৈরির আগেই কার্ডটির আকার,স্টাইল,রঙ ইত্যাদি সম্পর্কে খেয়াল রাখতে হবে।  এর মাধ্যমেই আপনার সব সম্পর্ক মজবুত হবে।  

২) বাস্তু মতে ভিজিটিং কার্ডের প্রতিটি কোণ ৯০ ডিগ্রী রাখলে ভালো হয় । বিভিন্ন কোণযুক্ত ভিজিটিং কার্ড  সম্পর্ক নষ্ট করে দিতে পারে। 

৩) ভিজিটিং কার্ডে ফোন নম্বর লেখার জন্য আপনি অবশ্যই  বায়ুকোণ এবং উত্তর-মধ্য  স্থানটি ব্যবহার করতে পারেন। 

৪) আপনি, আপনার নাম লিখুন ভিজিটিং কার্ডের ব্রহ্ম-স্থানে। যদিও এর বিকল্প আছে, আপনি  নৈর্ঋত কোণ স্থানটিতেও নিজের নাম লিখতে পারেন। 

আশা করা যায়, আপনি এই ভাবে ভিজিটিং কার্ড তৈরি করলে আপানার জনসংযোগ আরও বেশি গড়ে উঠবে। কর্মক্ষেত্রে  আপনার আরও বেশি সাফল্য আসবে। সর্বত্র আপনার সুনাম হবে।