শুক্রবার, ২২ মে এই মাসের প্রথম অমাবস্যায় উদযাপিত হবে শনি জয়ন্তী। এই দিনটি প্রথম মাসের অমাবস্যার দিন। এই দিনে পিতৃপুরুষের জন্য বিশেষ ধূপ-ধ্যান ও তর্পণ ইত্যাদি করা উচিত। জ্যোতিষশাস্ত্রের মতে শনি জয়ন্তী ও অমাবস্যায় শনি দেবতার আরাধনা করলে এবং নিজ সামর্থ্য অনুসারে দান করলে সুফল মেলে। এই সময়ে একটি জাতীয় লকডাউন রয়েছে, অনেক লোক খাদ্য পেতে অক্ষম, এমন পরিস্থিতিতে শনি দেবতার বিশেষ আশীর্বাদ দিতে অন্যকে সহায়তা করুন। শনিদেব এমন লোকদের উপর প্রসন্ন হন যারা নিঃস্বার্থভাবে দরিদ্রদের সেবা করে। 

আরও পড়ুন- নিজের মনের মত শান্তিপূর্ণ জীবন কাটাতে, মনে রাখুন জ্যোতিষশাস্ত্রের নিয়মগুলি

এই দিনটিতে ১২ রাশির জাতকেরই 'ওম শংস্যাত্রয় নমঃ' মন্ত্রটি উচ্চারণ করুন। খাবারে তিল এবং তেল দিয়ে তৈরি খাবারগুলি অবশ্যই অন্তর্ভুক্ত করুন। হনুমানজির সামনে প্রদীপ জ্বালিয়ে হনুমান চালিশা পাঠ করুন। শনি জয়ন্তীতে রাশি অনুসারে কী করা উচিৎ নয় তা  জেনে নিন…

মেষ রাশি- অন্যকে বিরক্ত করবেন না। সুন্দরকান্ড বা হনুমান চালিশা পাঠ করুন।

বৃষ - আপনার স্বার্থপরতার জন্য অন্য ব্যক্তির ক্ষতি করবেন না। শনি দেবতার নাম জপ করুন।

মিথুন - পিতা-মাতাকে প্রণাম করে দিনের শুরু করুন। শনিদেবকে কালো অড়হর ডাল অর্পণ করুন।

কর্কট - মিথ্যা বলা এড়িয়ে চলুন। শনি দেবতাকে মনে মনে স্মরণ করে সমস্য়ার কথা জানান।

সিংহ - ব্যবসায় কারও অন্যায় সুবিধা নেবেন না। হনুমানজিকে চেলি অর্পণ করুন।

কন্যা - এই রাশির জাতকদের রাগ এড়ানো উচিত। শনি দেবের মন্ত্রগুলি পড়ুন এবং জপ করুন।

তুলা- এই লোকদের নিঃস্বার্থ চেতনায় অভাবী মানুষের সেবা করা উচিত। সরিষার তেল দিয়ে অভিষেক করুন শনি দেবকে।

বৃশ্চিক - অলসতা এড়িয়ে চলুন এবং কঠোর পরিশ্রম করুন। হনুমান চালিশা পাঠ করুন।

ধনু - অতিরিক্ত উত্সাহ এড়িয়ে চলুন। শান্ত থাকুন এবং কাজ করুন। একটি বট গাছের নীচে একটি প্রদীপ জ্বালান।

মকর রাশি - এই লোকেরা এমনিতেই শান্ত। অশান্তি এড়িয়ে চলুন। শনি দেবের বৈদিক মন্ত্র জপ করুন।

কুম্ভ - কোনও প্রকারের গাফিলতি এড়িয়ে চলুন। হনুমানজির উপাসনা করুন এবং নীলা রত্নপাথর পরুন।

মীন - দান ধ্যান করুন। দরিদ্রদের সেবা করুন এবং বিপদে অপরকে সাহায্য করুন।