বড়দের একথা প্রায়ই বলতে শুনবেন, আজকাল প্রেমে পড়তে যত না সময় লাগে, তার অনেক কম সময় লাগে সম্পর্ক ভেঙে ফেলতে ৷ কিন্তু, সম্পর্ক কি সত্যিই এতটাই ঠুনকো যে চাইলেন ভেঙে ফেলা যায়? অনেক সময় সম্পর্কে সমস্যা দেখা দিতে পারে কিন্তু তাই বলে সামান্য় তর্ক বা ঝগড়া একটা সম্পর্কের ভাঙনের কারণ হতে পারে ৷ তবে জ্যোতিষশাস্ত্রের মতে আপনার সম্পর্ক সারাজীবন টিকিয়ে রাখতে রাশি অনুযায়ী সঙ্গী বেছে নিন। একটা ভালো সম্পর্ক টিকবে কিনা তা অনেকটাই নির্ভর করে উভয়ের রাশির উপর।

  • মেষ- এই জাতক-জাতিকার সঙ্গে এই রাশির সম্পর্ক গড়ে ওঠে না। এদের জন্য সিংহ, ধনু উপযুক্ত। মেষ ও সিংহের রসায়ন শুভ হয়। এই সম্পর্ক বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়।
  • বৃষ- এই জাতক-জাতিকার জন্য উপযুক্ত রাশি হল কন্যা রাশির জাতক-জাতিকা। অনেক ক্ষেত্রে আবার উভয় বৃষ রাশির সম্পর্কও শুভ হয়। 
  • মিথুন- এই রাশির সঙ্গে তুলা ও সিংহ রাশির সম্পর্ক গভীর হয়। এই রাশির সবচেয়ে ভালো বন্ধু হতে পারে মেষ এবং কর্কট। 
  • কর্কট- এই রাশির উপযুক্ত সঙ্গী রাশি হল কন্যা। জীবনসঙ্গী হিসেবে কন্যা রাশিকে অগ্রাধিকার দেওয়া উচিত কর্কটের। কন্যা রাশি কর্কটের জীবনকে অনেকভাবে প্রভাবিত করতে পারে। তবে, কন্যা রাশির সঙ্গে অনেক বাধা-বিঘ্ন পেরিয়ে তবেই বিবাহ সম্পন্ন হয়। তাছাড়া কুম্ভ রাশিও উপযুক্ত কর্কটের জন্য।
  • সিংহ- এই রাশির সঙ্গী হওয়ার সবচেয়ে উপযুক্ত রাশি হল মিথুন ও মীন রাশিতে। এদের সব সময়ে কন্যা রাশির সঙ্গে যে কোনও সম্পর্ক এড়িয়ে যাওয়া উচিত। যদি কন্যা রাশির সঙ্গে দাম্পত্য শুরু হয় তবে তা বেশি দিন স্থায়ী হয় না।
  • কন্যা- এই রাশির আদর্শ বন্ধু ও জীবনসঙ্গী হল কর্কট, মকর। এই রাশির জাতকের সবচেয়ে বড় শত্রু রাশি হল সিংহ। তাই সব সময় সিংহ রাশি কে এড়িয়ে চলাই ভালো।
  • তুলা- এ রাশির মিত্র রাশি  মিথুন এবং তুলা রাশিই। তুলা রাশির বৃশ্চিকের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে উঠলে তা হবে ক্ষণস্থায়ী।
  • বৃশ্চিক- এই রাশির সঙ্গে ধনু, মকর ও মীন এর সম্পর্ক শুভ। নিজ রাশির জাতক-জাতিকার সঙ্গে সম্পর্ক হলে তা ক্ষণস্থায়ী হতে পারে। এই রাশির সবসময় কর্কট রাশিকে এড়িয়ে চলাই ভালো কারণ দাম্পত্য স্থায়ী হয় না।
  • ধনু- এই রাশির সঙ্গে মেষ ও মকরের সম্পর্ক খুবই শুভ হয়। তবে নিজ রাশির অর্থাৎ ধনু রাশির জাতক-জাতিকাকে এড়িয়ে চলুন। এই জাতকের সবচেয়ে ভালো সঙ্গী হতে পারে মেষ।
  • মকর- এই রাশির জাতকের উপযুক্ত সঙ্গী হয় কন্যা, ধনু ও মীন রাশি। নিজ রাশির জাতক-জাতিকাকে এড়িয়ে চলুন। অনেক ক্ষেত্রে আবার তুলা রাশির সঙ্গে সম্পর্কও ভালো হয়। তুলা ও মকরের সমন্বয়ে প্রেমিক-প্রেমিকার বৃহস্পতি থাকে তুঙ্গে। 
  • কুম্ভ- এই রাশির জাতকের ভালো সঙ্গী রাশি একমাত্র মকর। নিজ রাশির সঙ্গে সম্পর্ক কিছু ক্ষেত্রে ভাল ফল দিতে পারে। তবে অনেক বাধা-বিপত্তি আসে। এদের সব সময় মিথুন রাশি এড়িয়ে চলা উচিত।
  • মীন- এই রাশির সবচেয়ে উপযুক্ত সঙ্গী রাশি হল বৃশ্চিক ও অনেকাংশে সিংহ। তবে মীন ও বৃশ্চিকের সমন্বয়ে শনির দশা কেটে যেতে পারে। মকরের সঙ্গেও সম্পর্ক অনেকাংশে টিকে যায়। তবে কুম্ভ রাশি কে এড়িয়ে চলাই শ্রেয়।