আমাদের প্রত্যেকের জীবনে কিছু না কিছু সমস্যা রয়েছে। আমাদের জীবনের এই সমস্যাগুলোকে সহজেই কাটিয়ে ওঠার জন্য জ্যোতিষীরা নানান রত্ন ধারণের পরামর্শ দেন। জ্যোতিষশাস্ত্র বলছে সঠিক নিয়মে গ্রহ-নক্ষত্র অনুযায়ী রত্ন ধারণ করলে ফিরতে পারে আপনার ভাগ্যও৷ তবে এই রত্ন ধারণের বিষয়ে নির্দিষ্ট কিছু সময় এবং নিয়ম মেনে চলা জরুরি। না হলে রত্ন ধারণের উপযুক্ত ফল পাওয়া যায় না। কোন রত্ন কোন আঙুলে ধারণ করলে উপযুক্ত ফল পাওয়া যাবে, জ্যোতিষশাস্ত্রে এ বিষয়ে নির্দিষ্ট কিছু নিয়মাবলী রয়েছে। জেনে নেওয়া যাক সেই নিয়মগুলি-

  • মুক্তো সব সময় অনামিকা বা কনিষ্ঠায় ধারণ করা দরকার। সেই রকম চন্দ্র গ্রহের রত্নও অনামিকা বা কনিষ্ঠায় ধারণ করা দরকার।
  • তর্জনী বা অনামিকায় রবির রত্ন এবং পোখরাজ ধারণ করতে হয়।
  • অনামিকা বা তর্জনীতে মঙ্গলের রত্ন এবং চুনী ধারণ করতে হয়।
  • কনিষ্ঠা বা মধ্যমাতে বুধ গ্রহের রত্ন ধারণ করতে হয়।
  • নীলা সব সময়েই মধ্যমাতে রত্ন ধারণ করতে হয়।
  • মঙ্গলের মতোই বৃহস্পতির রত্ন এবং প্রবাল সব সময় তর্জনী বা অনামিকাতে ধারণ করতে হয়।
  • কনিষ্ঠা বা অনামিকায় সব সময় হীরা এবং পান্না ধারণ করতে হয়।
  • কনিষ্ঠ বা মধ্যমাতে শুক্র গ্রহের রত্ন ধারণ করতে হয়।
  • মুনস্টোন কেবলমাত্র অনামিকায় ধারণ করতে হয়।