বিজয়া দশমীতে বাড়িতে করুন যজ্ঞ, জেনে নিন কী সুফল মেলে

| Oct 04 2022, 10:26 PM IST

বিজয়া দশমীতে বাড়িতে করুন যজ্ঞ, জেনে নিন কী সুফল মেলে

সংক্ষিপ্ত

বিজয়া দশমী বা দশেরার একটি বিশেষ তাৎপর্য রয়েছে যা মন্দের উপর ভালোর বিজয়ের প্রতীক। দশেরা বিজয়া দশমী নামেও পরিচিত। হিন্দু ক্যালেন্ডার অনুসারে, দশেরা বা বিজয়া দশমী উৎসব প্রতি বছর আশ্বিন মাসের শুক্লপক্ষের দশমী তিথিতে পালিত হয়। 

বাংলায় যেমন চলছে শারদীয়া পুজোর জাঁকজমক, তেমনই দেশের নানা অংশে পালিত হচ্ছে নবরাত্রি। এই নবরাত্রির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দিন দশেরা। বাংলায় যাকে বলা হয় বিজয়া দশমী। এই বিজয়া দশমীতে দেবী দুর্গার বিদায় বেলা। তবে হিন্দু ধর্মে দশেরার গুরুত্ব অনেক। এই উৎসব পালিত হয় মিথ্যার উপর সত্যের বিজয় হিসেবে। এই দিনে ভগবান শ্রী রাম রাবণকে বধ করেন। দশেরার দিন নিয়ম অনুযায়ী ভগবান শ্রী রামের পূজা হয়। 

বিজয়া দশমী বা দশেরার একটি বিশেষ তাৎপর্য রয়েছে যা মন্দের উপর ভালোর বিজয়ের প্রতীক। দশেরা বিজয়া দশমী নামেও পরিচিত। হিন্দু ক্যালেন্ডার অনুসারে, দশেরা বা বিজয়া দশমী উৎসব প্রতি বছর আশ্বিন মাসের শুক্লপক্ষের দশমী তিথিতে পালিত হয়। পৌরাণিক কাহিনি অনুসারে, এই দিনে লঙ্কাপতি রাবণকে বধ করে ভগবান রাম মন্দের উপর ভালোর জয়লাভ করেছিলেন। জ্যোতিষশাস্ত্রের হিসেব অনুযায়ী, এ বছর দশেরার দিনে অনেক শুভ যোগ সংঘটিত হওয়ার কারণে এই দিনটির গুরুত্ব বাড়ছে। দশেরার দিনে যজ্ঞ করা শুভ বলে মনে করা হয়। যজ্ঞ করলে দুঃখ-কষ্ট দূর হয় এবং সুখ-সমৃদ্ধি বৃদ্ধি পায়। আসুন জেনে নিই এর পদ্ধতি ও উপকরণ।

Subscribe to get breaking news alerts

যজ্ঞ বিধি

দশেরার দিনে খুব ভোরে উঠতে হবে।
স্নান ইত্যাদি কাজ সেরে ফেলার পর পরিষ্কার কাপড় পরিধান করুন।
শাস্ত্র মতে যজ্ঞ করার সময় স্বামী-স্ত্রীর একসঙ্গে বসতে হবে।
একটি পরিষ্কার জায়গায় একটি যজ্ঞ কুন্ড তৈরি করুন।
আম গাছের কাঠ ও কর্পূর দিয়ে যজ্ঞ কুণ্ডে আগুন জ্বালান।
যজ্ঞ কুণ্ডে সমস্ত দেবতার নাম নিবেদন করুন।
ধর্মীয় বিশ্বাস অনুসারে, কমপক্ষে ১০৮টি বলি দিতে হবে। আপনি এর চেয়েও বেশি বলি দিতে পারেন। 

যজ্ঞ শেষ হলে, আরতি করুন এবং দেবতাকে নৈবেদ্য দিন। কন্যা পূজারও এই দিনে বিশেষ তাৎপর্য রয়েছে। আপনি যজ্ঞের পরে কন্যা পূজাও করতে পারেন।

যজ্ঞের উপকরণ- আমের কাঠ, বেল, নিম, পলাশ গাছ, কালিগঞ্জ, দেওদার মূল, সিকামোরের ছাল ও পাতা, পাপলের ছাল ও কাণ্ড, বরই, আমের পাতা ও কাণ্ড, চন্দন কাঠ, তিল, কর্পূর, লবঙ্গ, চাল, ব্রাহ্মী, মদ, অশ্বগন্ধার মূল, বহেড়ার ফল, হারে, ঘি, চিনি, যব, গুগ্গল, লোবান, এলাচ, ঘুঁটে, ঘি, নারকেল, লাল কাপড়, কালাভা, সুপারি, পান, বাতাসা, পুরি ও ক্ষীর।

null