জীবন নির্বাহ করার জন্য যে কোনও প্রাণীর প্রধাণ প্রয়োজনীয় উপাদান হল বায়ু, জল ও খাদ্য। হিন্দু ধর্মে অন্ন বা খাদ্যকে মা লক্ষ্মী হিসেবে মনে করা হয়। জীবদেহে শক্তির উৎস হল খাদ্য। তাই খাদ্য ছাড়া জীবন ধারণ করা কোনও ভাবেই সম্ভব নয়। হিন্দু ধর্ম অনুযায়ী শাস্ত্র মতে তাই খেতে বসে কখনোই এই ভুল কাজগুলি করা উচিত নয়। এর ফলে জীবনে দেখা দিতে পারে চরম দুর্দশা। দেখা দিতে পারে আর্থিক অনটান। মনে করা হল এই ভুলগুলি করলে গৃহলক্ষী ঘর ত্যাগ করেন। যার প্রভাব পড়ে সংসারের উপর। জেনে নিন সেই ভুল কাজগুলি কী কী-

আরও পড়ুন- মে মাস কেমন প্রভাব ফেলবে কুম্ভ রাশির উপর, দেখে নিন

হিন্দু শাস্ত্র অনুযায়ী মাটিতে খেতে বসা সবথেকে শুভ এবং তা শরীরের জন্যো উপকারী। তাই চেয়ার-টেবিলে বসে খাওয়ার থেকে মাটিতে বসে খাওয়া অনেক ভালো। খেতে বসে খাবার গ্রহণ করার আগে আগে ঈশ্বরকে স্মরণ করে তবে ধীরে ধীরে আহার গ্রহণ করা উচিত। এর ফলে সংসারের মঙ্গল হয়। এর অর্থ আপনি যে আহার গ্রহণ করছেন তার জন্য আপনি ঈশ্বরের প্রতি কৃতজ্ঞ। যেটুকু খেতে পারবেন থালায় সেটুকুই নিন। অতিরিক্ত এবং প্রতিদিন নিয়ম করে খাবার নষ্ট করা বন্ধ করুন। এতে সংসারে ঘোর অমঙ্গল হয়। খাবারের শেষ থালা চেটে খাওয়া একেবারেই উচিত নয়, এতে মা লক্ষ্মী রুষ্ট হন।

আরও পড়ুন- আজ ধনু রাশির কাজের ক্ষতি হতে পারে, দেখে নিন আপনার রাশিফল

খাবারের থালায় দাগ কাটার স্বভাব অনেকেরই দেখা যায়। বিশেষ করে যাদের খেতে সময় লাগে, তাদের মধ্যে এই প্রবণতা বেশি করে দেখা যায়। এই রকম করা অকেবারেই উচিত নয়। এই স্বভাবের ফলে ঘরে অভাব অনটন বৃদ্ধি পেতে পারে। খেতে বসে রাগ করে খাবার থালা ঠেলে সরিয়ে দেওয়া বা অর্দ্ধেক খেয়ে উঠে পড়া একেবারেই উচিত নয় এতে সংসারের অভাব পিছু ছাড়ে না। গামছা পরে কখনই খেতে বসবেন না এর ফেল সংসারের অভাব কখনোই কাটবে না।