হিন্দুধর্মে দেবী দুর্গা পরমা প্রকৃতি ও সৃষ্টির আদি কারণ। তিনি শিবের স্ত্রী পার্বতীর উগ্র রূপ, কার্তিক ও গণেশের জননী, এবং কালীর অন্যরূপ। বাংলা মঙ্গলকাব্যগুলিতে এবং আগমনী গানে দুর্গারূপে শিবজায়া হিমালয়দুহিতা পার্বতীর সপরিবারে পিতৃগৃহে অবস্থানের আনন্দময় দিনগুলির  অর্থাৎ দুর্গাপূজা এবং তার বিবাহিত জীবনের অপূর্ব বর্ণনা পাওয়া যায়। দেবী পার্বতী দেবতাদের অনুরোধে দুর্গম অসুর কে বধ করেন তাই দেবী পার্বতী দুর্গা নামে অভিহিত হন। 

আরও পড়ুন- কার্তিক মাস কেমন প্রভাব ফেলবে বৃষ রাশির উপর, দেখে নিন

তিনিই দুর্গতিনাশীনি। হিন্দু শাস্ত্রমতে তাই দেবীপক্ষের মঙ্গলবারে যদি নিষ্ঠাভরে কিছু নিয়ম পালন করা যায়, তবে সংসারের নেতিবাচক শক্তি থেকে সহজেই মুক্তি মিলতে পারে। জেনে নেওয়া যাক সেই নিয়মগুলি-

দেবীপক্ষের মঙ্গলবার জীবনের সমস্ত প্রতিকূলতা কাটিয়ে ওঠার জন্য মাতা গৌরীর পুজো করুন। 
শুদ্ধ মনে, শুদ্ধ বস্ত্রে লাল ফুল অর্পণ করুন মায়ের উদ্দেশ্যে। আপনার জীবনের সমস্ত বাধা কেটে যাবে ধীরে ধীরে। 


এই দিনে যদি উপোস করে হনুমানজী, দুর্গা ও কালী অথবা আপনার ইষ্টদেবতার আরাধনা করতে পারেন তবে আপনার জীবনে সৌভাগ্য ফিরে আসবেই। 
দেবতার পুজো করে তবে উপোস ভঙ্গ করতে হবে। সম্ভব হলে দেবীপক্ষের মঙ্গলবার দিনটি নিরামিষ আহার গ্রহণ করুন। 
দেবীপক্ষের মঙ্গলবারের জন্য লাল রং অত্যন্ত শুভ বলে মনে করা হয়। তাই এদিনে লাল বস্ত্র পরিধান করুন, সমস্ত বাধা-বিপত্তি কেটে যাবে।
জ্যোতিষশাস্ত্র মতে, প্রত্যেকটি দিনের রয়েছে কিছু বিশেষ তাৎপর্য। সপ্তাহের সাতটি দিনের মধ্যে মঙ্গলবার দিনটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হয়। তাই দেবীপক্ষে এই দিনের রয়েছে বিশেষ তাৎপর্য। দেবীপক্ষের এই দিনে এই কয়েকটি বিশেষ নিয়ম মেনে চললেই হতে পারে আপনার হবে সার্বিক উন্নতি, মিলবে সৌভাগ্য।