জ্যোতিষশাস্ত্র মতে গুরুগ্রহ বৃহস্পতির রত্ন হল পোখরাজ। বৃহস্পতির ক্ষেত্রে প্রতিকার হল পীত পোখরাজ। বৃহস্পতিবার সোনার সঙ্গে ধারণ করলে সুফল পাওয়া যায়। এটি হল উজ্জ্বল স্বচ্ছ হলুদ বর্ণের রত্ন।  সংস্কৃতে একে বলা হয় পীতমণি বা পুষ্পরাগ। ফার্সিতে বলে ইয়াকুত অফসর। 
তবে উজ্জ্বল স্বচ্ছ হলুদ বর্ণ ছাড়াও পোখরাজ ছাই ও সাদা রঙেরও হয়। এই ধূসর বা সাদা পোখরাজ শুক্রের প্রতিকারের জন্য ব্যবহার করা হয়। শ্রীলঙ্কা, ব্রাজিল, বর্মা বা মায়ানমার ও জাপানে উন্নতমানের পোখরাজ পাওয়া যায়। তবে একথা অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে কোনও রত্ন ধারণ করার তিন  মাস পর ফল দেয়।
বাজারে পাওয়া সমস্ত রত্নের ভিতর থেকে আপনি কী করে বুঝবেন যে, কোনটা আসল ও কোনটা নকল রত্ন। তবে আপনি যদি রত্নবিশেষজ্ঞ না হন, তবে আপনি কি করে চিনবেন আসল কোনটা আসল আর কোনটা নকল পোখরাজ? তবে জেনে নেওয়া যাক খাঁটি পোখরাজ চেনার সহজ উপায়-
সূর্যের আলোয় পোখরাজ কে একটি সাদা কাপড়ে মুড়ে কিছুক্ষণ রেখে দিলে কাপড়ের ওপর হলুদ আভা দেখা দিলে বুঝবেন পোখরাজটি খাঁটি।
কাঁচা দুধে চব্বিশ ঘন্টা রেখে দিলেও খাঁটি পোখরাজের উজ্জ্বলতা কমে না।
বিষাক্ত পোকা কামড়ালে সেই স্থানে খাঁটি পোখরাজ ঘষে দিলে দ্রুত বিষ নেমে যায় বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।