মানুষ ক্রমাগত জীবনে সফল হওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু যখন ভাগ্য কঠোর পরিশ্রমের সঙ্গে মিলিত হয়, তখন ব্যক্তির সাফল্যের দিকে এগোয়। কোনও ব্যক্তির সাফল্য এবং ব্যর্থতা ও হাতের রেখা দিয়ে সনাক্ত করা যায়। হাতের রেখার মতো, হাতের ধরনটিও কোনও ব্যক্তির কঠোর পরিশ্রম ও ভবিষ্যতের কথা বলে। তাই হাতের রেখায়, যবের আকারে গঠন এবং রঙকে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়। হস্তরেখা অনুসারে, প্রতিটি ব্যক্তির হাতের রেখা আলাদা। একইভাবে, হাতের রেখা এবং ধরনটিও আলাদা। রেখার এই যব এবং এর নকশাটি দেখে সেই ব্যক্তির ভবিষ্যত সম্পর্কে অনেক কিছু ধারনা করা সম্ভব। 

আরও পড়ুন- কন্যা রাশির কতটা উন্নতি হবে মাঘ মাসে, দেখে নিন ...

হাতে ছোট যবের আকার- যাদের হাতে যবের আকার ছোট রয়েছে, এ জাতীয় লোকগুলি চিন্তায় বেশি হারিয়ে যায়, এমন লোকদের সম্পর্কে বলা হয় যে এই জাতীয় লোকেরাও দিনে ভবিষ্যৎ নিয়ে স্বপ্ন দেখে। এ জাতীয় লোকেরা কঠোর পরিশ্রমের পরিবর্তে পরিকল্পনায় তাদের সময় ব্যয় করে। যে কারণে এই ধরনের মানুষের সাফল্য বিলম্বিত হয়। এই ধরনের চিহ্ন যাদের হাতে রয়েছে তাদের সামর্থ্যের অভাব নেই, তবে তারা এটি সঠিকভাবে ব্যবহার করতে সক্ষম হয় না। এই ধরনের লোকেরা মন্ত্রমুগ্ধ হয়, অর্থাৎ লোকেরা তাদের প্রশংসা শুনতে পছন্দ করে। কখনও কখনও তারা নিজেরাও নিজেদের প্রশংসা শুরু করে। এমন ব্যক্তি জীবনে ভুল সিদ্ধান্তের কারণে লোকসান হয়।

আরও পড়ুন- বৃহস্পতিবার ৩ রাশির সঙ্গীর সঙ্গে মতবিরোধ হতে পারে, দেখে নিন আজকের রাশিফল

মাঝারি আকারে যবের চিহ্ন-  হাতে যদি মাঝারি আকারে যবের চিহ্ন থাকে সেই লোকেরা খুব বুদ্ধিমান হয়। এই ধরনের লোকেরা তাদের কাজটি দায়বদ্ধতার সঙ্গে করে। এই জাতীয় ব্যক্তিদের ব্যবহার এবং দূরদর্শীও থাকে, যার কারণে তারা প্রায়শই আগত বিপদের ঝুঁকি বুঝতে পারেন। এ জাতীয় লোকের কাজ আটকে যায় না। তারা হলেন ভাল ব্যবসায়ী, কর্মী, অফিসার এবং আইনজীবী। রাজনীতিবিদ হওয়ার গুণাবলীও তাদের রয়েছে। এই জাতীয় ব্যক্তিরা জীবনে ভাল সাফল্য অর্জন করে। তারা সামাজিক ও ধর্মীয় কার্যক্রমেও বড় উপায়ে অংশ নেয়।

বড় যবের চিহ্ন- মাঝারি আকারে যবের চিহ্নের চেয়ে যদি বড় আকারের যবের আকারের চিহ্ন হাতে থাকে তবে তাঁরা জীবনে বিশেষ সাফল্য পান। এ জাতীয় লোকেরা কিছু বড় কাজ করেন। এটাও বলা যেতে পারে যে এই জাতীয় ব্যক্তি তার যে কোনও কাজই গ্রহণ করেন। এরা সংকটে ভয় পায় না, উল্টে দৃঢ়তার সঙ্গে সঙ্কটের সময়ে তাদের মুখোমুখি করেন। যাঁদের হাতে এই চিহ্ন রয়েছে তারা খুব সচেতন এবং তারা প্রতিটি কাজ গুরুত্বের সঙ্গে করতে চলেছেন। হতাশা এই ধরনের ব্যক্তিকে দীর্ঘ সময়ের জন্য হতাশ করতে পারে। কিছু সময় পরে এই লোকেরা আবার চেষ্টা শুরু করে। নিজের ধারা থেকে বেরিয়ে অন্য কিছু কাজ করার আকাঙ্ক্ষা তাঁদের জীবনে সফল করে তোলে। এ জাতীয় মানুষ কখনও খালি বসে না তারা খুব সংবেদনশীল হয়।