মাণিক্য বা চুনি ধারণের শ্রেষ্ঠ সময় হল রবিবার। এছাড়া সপ্তমী তিথিতে সংক্রান্তির দিন এই রত্ন ধারণ করা যায়। চুণী নানা রঙের হয়ে থাকে। তবে উৎকৃষ্ঠ চুণীর রং হয় লাল। এ ছাড়া বাদামী লাল, কালচে লাল, কমলা ইত্যাদি, কালচে গোলাপী রঙের চুণীও পাওয়া যায়। চুণীর আরেক নাম রত্নরাজ। চুণীকে সূর্যকান্তমণিও বলা হয়। ফারসি ও আরবিতে এটিকে এয়াকুত বা ইয়াকুত বলা হয়। সংস্কৃততে একে বলা হয় পদ্মরাগ। চুনা পাথরের ভিতরে এটির জন্মস্থান বলেই একে বলা হয় চুণী। রত্ন ধারনের আগে মনে রাখতে হবে, যে কোনও রত্নের বিশেষ ফল  বা উপকারীতা পাওয়া যায় ৩ মাস পর থেকে এবং উপরত্নগুলি ফল দেয় ৬মাস পর থেকে।

আরও পড়ুন- জন্মবার অনুযায়ী কোন রং আপনার জন্য শুভ
রত্ন বিশেষজ্ঞদের মতে, যাদের ওজন ক্রমাগত বেড়ে চলেছে তাঁরা এই রত্ন ধারণ করতে পারেন। এর ফলে দ্রুত ফল দেয়।
যাদের লগ্নের সপ্তমে রবির অবস্থান বা শনির ক্ষেত্রে রবির অবস্থান সেই ব্যক্তিদের চুণী ধারণ করা প্রয়োজন।
কোনও জাতক বা জাতিকার রবির স্থান খারাপ হলে কোনও দুষ্ট গ্রহ দ্বারা আক্রান্ত হলে তাঁর চুণী ধারণ করা প্রয়োজন
বিশেষজ্ঞদের মতে  এই রত্ন রক্ষাকারক বা রক্ষা কবত হিসেবে কাজ করে
যারা সন্তান ধারণে অক্ষম, এই রত্ন সেই ক্ষেত্রেও বিশেষ কার্যকর।
বিশেষজ্ঞদের মতে, শরীর থেকে বিষাক্ত ও রাসায়নিক দ্রব্য দূর করতেও সাহায্য করে এই রত্ন