হিন্দু বিবাহিতা মহিলাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ তিথি হল বট সাবিত্রী পুজো। বৃহস্পতিবার জৈষ্ঠ অমাবস্যা তিথিতে এই ব্রত পালন করেন বিবাহিতা মহিলারা। সারাদিন উপবাস করে স্বামীর মঙ্গল কামনায় পুজো করেন তাঁরা। সাবিত্রী ও সত্যবানের কাহিনীর মতো সিথির সিঁদুর অক্ষয় রাখার কামনা করেন তাঁরা। 

সাবিত্রীর মতো তাঁরাও যেন অক্ষয় সিঁথি লাভ করেন, সেই কামনাকে সামনে রেখেই ব্রত পাঠ হয়, চলে দিনভর পুজো। তবে ২০২১ সালের বট সাবিত্রী পুজোর এক বিশেষ তাৎপর্য রয়েছে। কারণ ১০ই জুন অর্থাৎ বৃহস্পতিবার সূর্যগ্রহণ। প্রশ্ন উঠতেই পারে সূর্যগ্রহণের মধ্যে কি পুজো করা বা ব্রত পালন করা যাবে। পুরাণ মতে জৈষ্ঠ অমাবস্যায় সূর্য ও ছায়া পুত্র শনি জন্মগ্রহণ করেন। তাই এদিনটা শনি জয়ন্তীও বটে। ফলে আজকের দিনের রীতিমতো তাৎপর্য রয়েছে। 

১৪৮ বছর পর এই মাহেন্দ্রযোগ দেখা গেল ১০ই জুন, একই দিনে শনি জয়ন্তী, বট সাবিত্রী  ব্রত ও সূর্যগ্রহণ। ভারত থেকে আংশিক সূর্যগ্রহণ দেখা যাবে। তবে বেশিরভাগ জায়গা থেকেই তা পরিলক্ষিত হবে না। এমন যোগ প্রায় দেড়শ বছর পর দেখা গেল। 

 

পঞ্জিকা অনুসারে দুপুর ১টা ৪২ মিনিটে শুরু হবে সূর্য গ্রহণ। এই গ্রহণ শেষ হবে সন্ধে ৬টা ৪১ মিনিটে। অর্থাৎ পাঁচ ঘণ্টা ধরে চলবে এই গ্রহণ। কিন্তু আংশিক সূর্যগ্রহণ হওয়ায় এবং এ দেশে তার প্রায় দেখা না যাওয়ার বিশেষ প্রভাব পড়বে না। সাধারণত গ্রহণ শুরু হওয়ার ১২ ঘন্টা আগে শুরু হয় সূতক কাল। এই সময় পুজো পাঠ নিষিদ্ধ। তবে ভারতে সূর্যগ্রহণ দেখা না যাওয়ায়, সাবিত্রী ব্রত পালনে কোনও নিষেধাজ্ঞা জারি হয়নি। 

১০ই জুন সাবিত্রী ব্রত পালনের সময়সূচি

৯ই জুন দুপুর ১২টা ২৭ মিনিট থেকে অমাবস্যা শুরু হয়েছে। ১০ জুন দুপুর ২টো ৫২ মিনিটে শেষ হচ্ছে অমাবস্যা। বট সাবিত্রী ব্রত তিথি পড়েছে ১০ জুন। ব্রত ভঙ্গ করা যাবে ১১ই জুন, শুক্রবার। পুজো করা যাবে না রাহুকাল- দুপুর ২টো ৩০ মিনিট থেকে সন্ধে ৩টে ৪৭ মিনিট পর্যন্ত। যমগণ্ড- সকাল ৫টা ৪৪ মিনিট থেকে সকাল ৭টা ২৪ মিনিট পর্যন্ত।