রাশি পরিবর্তন করে মঙ্গল প্রবেশ করছে মীন রাশিতে। এর ফলে মেষ, বৃষ, মিথুন, কর্কট, সিংহ-সহ সমস্ত রাশিচক্রকে প্রভাবিত করতে চলেছে। তবে এই রাশির উপর প্রভাব বেশি থাকবে। পাশাপাশি যাদের মঙ্গল দুর্বল তাঁদেরও এই সময় বহু সমস্যার সম্মুখীণ হতে হবে। মঙ্গল গ্রহের এই রাশির পরিবর্তন বিশ্বকেও প্রভাব ফেলতে চলেছে। সুতরাং, মঙ্গল গ্রহের এই রাশিচক্রটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। মঙ্গল গ্রহের প্রকৃতি মঙ্গলকে জ্যোতিষশাস্ত্রের সমস্ত গ্রহের সেনাপতি হিসাবে বিবেচনা করা হয়। মঙ্গল গ্রহ মেষ ও বৃশ্চিক রাশির অধিপতি। মঙ্গল গ্রহের সঙ্গে সূর্য, চন্দ্র এবং বৃহস্পতি অর্থাৎ গুরু গ্রহের বন্ধুত্ব রয়েছে। 

জ্যোতিষ অনুসারে যে কোনও রাশির জাতক জাতিকার মঙ্গল যখন ভাল থাকে, সেই ব্যক্তির সাহস বৃদ্ধি পায়। লক্ষ্য অর্জনের দিকে দৌড়য়। এ জাতীয় লোকেরা খুব তাড়াতাড়ি রেগে যায়। অশুভ মঙ্গলও কারাগার, দুর্ঘটনা, বিবাহবিচ্ছেদ, অপারেশন এবং মানসিক চাপের মত সমস্যার সৃষ্টি করে। জন্মছকে মঙ্গলের ভূমিকা অত্যন্ত কার্যকর বলে বিবেচিত হয়। মঙ্গলকে শক্তির একটি উপাদান হিসাবে বিবেচনা করা হয়।

মীন রাশিতে মঙ্গল প্রবেশ করবে ৪ অক্টোবর সকাল ১০ টা বেজে ৬ মিনিটে বক্রী হয়ে মেষ থেকে মীন রাশিতে প্রবেশ করবে। এরপর ১৪ নভেম্বর সকাল ৬ টা বেজে ৬ মিনিটে আবার বক্রী হবে। এরপর ২৪ ডিসেম্বর আবারও মেষ রাশিতে স্থানান্তরিত করবে। জ্যোতিষ অনুসারে, মঙ্গল মীন রাশিতে সর্বাধিক ৮১ দিনের জন্য থাকবে।

মীন রাশিতে মঙ্গলের প্রবেশ মীন রাশিকে মিশ্র ফল দেবে। মঙ্গলটি বিপরীতমুখী, মানে বিপরীতে চলছে। এমন পরিস্থিতিতে মঙ্গল অশুভ ফল দেবে। কারণ গ্রহটি প্রতিবিম্বিত অবস্থায় জর্জরিত, যার কারণে শুভ ফল কমছে। মীন রাশিতে এই গ্রহের প্রবেশের ফলে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। রাগ এড়িয়ে চলতে হবে। আপনার সীমিত সংস্থানগুলিতে আপনার সমস্ত কাজ করতে হবে। এই সময়ে প্রতিবেশীদের সঙ্গে সম্পর্ক আরও খারাপ হতে পারে। ভ্রমণের সময় সাবধানতা অবলম্বন করুন। বিবাহিত জীবনে মধুর ঘাটতি থাকতে পারে। স্বাস্থ্যের প্রতি যত্ন নিতে হবে। যে কোনও প্রকার বিতর্ক এড়িয়ে চলুন। ধর্মীয় কাজে আগ্রহী হন। খারাপ অভ্যাস এড়িয়ে চলুন।