১৪ অক্টোবর বুধবার থেকে, বুধ তুলা রাশির দিকে প্রত্যাবর্তন করবে। এর পরে, আগামী মাসে ৪ নভেম্বর, এই গ্রহটি সরলরেখায় চলতে শুরু করবে। জ্যোতিষশাস্ত্রের মতে, বুধের গতিবিধির পরিবর্তনের কারণে ৫ রাশির জন্য একটি ভাল সময় শুরু হতে চলেছে। অন্য ৭ রাশির এই সময় যত্নবান হতে হবে। বুধের প্রভাবে লেনদেন, অর্থনীতি এবং কার্যকারিতায় পরিবর্তন হতে পারে।

১২ রাশিতে বুধের প্রভাব-

শাস্ত্র মতে বুধের চলাচলের পরিবর্তনের কারণে বৃষ, মিথুন, কন্যা, মীন এবং মকর রাশির জন্য এই সময় মঙ্গলজনক হবে। একই সঙ্গে মেষ, কর্কট, সিংহ, তুলা, বৃশ্চিক, ধনু এবং কুম্ভ রাশির এই সময় বিশেষ যত্নবান হতে হবে।  যখন বুধ রাশিতে সরল রেখায় চলবে তখন বৃষ, মিথুন, কুমারী, মীন এবং মকর রাশি এর দ্বারা উপকৃত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এই ৫ রাশির ভাগ্যকে সমর্থন করবে বুধ। এই রাশির কাজে পদোন্নতির সুযোগও মিলবে। বুধ এই রাশির জাতকদের স্বাস্থ্যেরও উন্নতি করতে পারে। লেনদেন এবং বিনিয়োগে উপকৃত হতে পারে। আটকে থাকা টাকা পাওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে।

বুধের অশুভ প্রভাবের কারণে, মেষ, কর্কট, সিংহ, তুলা, বৃশ্চিক, ধনু এবং কুম্ভ রাশির জাতকদের জন্য সময় একটু প্রতিকূল হতে পারে। এই ৭ রাশির ৪ নভেম্বর পর্যন্ত এমন পরিস্থিতি বজায় থাকবে। কাজকর্মে অসতর্কতার কারণে সমস্যাগুলি বাড়তে পারে। লেনদেন এবং বিনিয়োগের ক্ষেত্রে নেওয়া সিদ্ধান্তগুলি ভুল হওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। গোপন বিষয় প্রকাশিত হতে পারে। স্বাস্থ্য সম্পর্কিত বিষয়ে আমাদের সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। গলা সম্পর্কিত রোগ দেখা দিতে পারে।

এর অশুভ প্রভাব এড়াতে বুধবারে গণেশ পুজো করুন। বুধের অশুভ প্রভাব এড়াতে এবং শুভ প্রভাব বাড়ানোর জন্য গণেশ-এর পুজো করা উচিত। প্রতি বুধবার গণেশ -কেলাড্ডু ভোগ দিন। পুজোর সময় গণেশ-এর পায়ে দুর্বা উত্সর্গ করুন। গণেশ মন্দিরে সবুজ কাপড় দান করলে আরও ভালো ফল পাবনে। স্নানের জলে তুলসী পাতা দিয়ে সেই জল দিয়ে স্নান করুন, এর ফলে বুধ গ্রহের অশুভ প্রভাব হ্রাস করা যায় সহজেই।