Asianet News BanglaAsianet News Bangla

আর্থিক সমস্যা হবে দূর করতে, গণেশ-কে এই নিয়মে দূর্বা অর্পণ করুন এবং এই মন্ত্র জপ করুন

সিদ্ধিদাতাকে একটি শুভ সময়ে প্রতিষ্ঠা করা হয়। গণেশ উৎসব দশ দিনের উৎসব। সিদ্ধিদাতাকে ১০ দিন বাড়িতে রাখা হয় এবং গণেশ বিসর্জনের দিনে গণপতি বিসর্জন হয়। এবার ৩১ আগস্ট বুধবার গণেশ চতুর্থী উদযাপিত হবে। 
 

Offer durva to Ganpati and with this mantra Bappa will blessings BDD
Author
First Published Aug 29, 2022, 12:16 PM IST

হিন্দুধর্মের প্রতিটি উত্সব অত্যন্ত আড়ম্বর ও ভক্তি সহকারে উদযাপিত হয়। গণেশ চতুর্থীর উৎসবও এর মধ্যে একটি। ভাদ্র মাসের শুক্লপক্ষের চতুর্থী তিথিতে গণেশ চতুর্থী পালিত হয়। এই দিনে বাড়িতে সিদ্ধিদাতাকে একটি শুভ সময়ে প্রতিষ্ঠা করা হয়। গণেশ উৎসব দশ দিনের উৎসব। সিদ্ধিদাতাকে ১০ দিন বাড়িতে রাখা হয় এবং গণেশ বিসর্জনের দিনে গণপতি বিসর্জন হয়। এবার ৩১ আগস্ট বুধবার গণেশ চতুর্থী উদযাপিত হবে। 

ঘরে গণেশ প্রতিষ্ঠা করলে ঋদ্ধি-সিদ্ধি লাভ হয়। এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে ভগবান গণেশ খুব তাড়াতাড়ি রেগে যান। কিন্তু তাদের রাজি করাও সমান সহজ। তাই গণপতির পুজোর সময় যদি কিছু কাজ সাবধানে করা হয়, তাহলে সিদ্ধিদাতা খুব তাড়াতাড়ি প্রসন্ন হতে পারেন। জ্যোতিষশাস্ত্র অনুসারে, ভগবান গণেশকে প্রিয় জিনিস নিবেদন করলে তার উপকার হয়। এর মধ্যে একটি হল দূর্বা। কথিত আছে, দূর্বা সিদ্ধিদাতার খুব প্রিয়। আর দূর্বা ছাড়া গণপতির পূজা অসম্পূর্ণ বলে মনে করা হয়। আসুন জেনে নেই দূর্বা নিবেদনের নিয়ম। 

এইভাবে উৎসর্গ করুন
জ্যোতিষশাস্ত্র অনুসারে, দূর্বা ছাড়া গণপতির পূজা অসম্পূর্ণ বলে মনে করা হয়। এছাড়াও, কথিত আছে যে সিদ্ধিদাতাকে দূর্বা নিবেদন করলে তিনি দ্রুত প্রসন্ন হন এবং ভক্তদের সমস্ত কষ্ট দূর করেন। দূর্বা সবসময় জোড়ায় জোড়ায় নিবেদন করা হয়। এমন অবস্থায় দুটি দূর্বাকে যুক্ত করে একটি গিঁট তৈরি করা হয়। এমন অবস্থায় ২২টি দূর্বা যোগ করে ১১ জোড়া তৈরি করুন। যদি তা সম্ভব না হয়, তবে সিদ্ধিদাতাকে ৩ বা ৫ গাঁট দূর্বাও নিবেদন করা যেতে পারে। 

দূর্বা নিবেদনের সময় এই মন্ত্রটি জপ করুন 
শাস্ত্র অনুসারে, গণেশকে দূর্বা অর্পণ করার সময় মন্ত্র জপ করা সর্বোত্তম বলে মনে করা হয়। মন্ত্র জপ করার সময় দূর্বা নিবেদন করলে ঘরে সুখ-সমৃদ্ধি থাকে এবং গণেশ -এর কৃপা বজায় থাকে। 

দূর্বা নিবেদনের মন্ত্র- 
- ইদ দূর্বাদলম ওম গং গণপতয়ে নমঃ
- ওম গম গণপতয়ে নমঃ
ওম একদন্তে বিদমহে, বক্রতুন্ডায় ধীমহি, তন্নো দন্তি প্রচোদয়াৎ
- ওম শ্রীম হ্রীম ক্লীন গ্লুম গনপতি ভার ভারদ সর্বজন জন্মায় বাসমানিয়ে স্বাহা তৎপুরুষ       
বিদমহে বক্রতুন্ডায় ধীমহি তন্নো দন্তি প্রচোদয়ত ওম শান্তি শান্তি শান্তিঃ
- ওম বক্রতুন্ডক দানত্রয় ক্লীম হ্রীম শ্রীঙ্গ গণপতে ভার ভারদ সর্বজনম মে বসমনায় স্বাহা

আরও পড়ুন- এদিন চাঁদ দেখা নিষেধ, দেখলে হতে পারে সম্মানহানি, জেনে নিন কারণ ও তিথি

আরও পড়ুন- গণেশ চতুর্থীতে প্রতিটি ইচ্ছা হবে পূরণ, কেবল এই প্রিয় জিনিসগুলি গণপতিকে নিবেদন করুন

আরও পড়ুন- ২০২২ সালের গণেশ চতুর্থী কবে, জেনে নিন গণেশ পুজোর দিন-ক্ষণ ও পূজা পদ্ধতি

 এই বিষয়গুলো মাথায় রাখুন

শাস্ত্র অনুসারে, ভগবান গণেশের মাথায় দূর্বা নিবেদন করা হয়। মন্দির বা বাগানে উৎপন্ন দূর্বা সর্বদা নিবেদন করা উচিত। এটি কোথাও থেকে ভাঙা উচিত নয়। এমন জায়গা থেকে দূর্বা আনবেন না, যেখানে জমি নোংরা বা মাটিতে নোংরা জল রয়েছে। গণেশকে দূর্বা অর্পণের আগে পরিষ্কার জলে ধুয়ে ব্যবহার করুন। 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios