হিন্দু সম্প্রদায়ের কাছে পেঁচা মা লক্ষ্মীর বাহক হিসাবে পরিচিত। তবুও এই প্রাণী শুভ এবং অশুভ হিসাবে বিবেচিত হয়। পেঁচা সম্পর্কে অনেক ধরণের বিশ্বাস সমাজ ও ধর্মে প্রচলিত। পেঁচা দেখে অনেকে ভয় পান, আবার অনেকে তা দেখে খুশি হন। পেঁচা দেখলে বিভিন্ন ধরণের বিষয় মানুষের মনে কাজ করে। জেনে নেওয়া যাক পেঁচা সংক্রান্ত এমন কিছু বিশ্বাস বা রীতি সম্পর্কে যা আজও মেনে চলেন অনেকে। 

আরও পড়ুন- অকাল মৃত্যু রোধে পালন করা হয় এই বিশেষ তিথি, এদিনে এই কাজগুলি করলে দেয় অবিশ্বাস্য ফল

পুরানে কথিত আছে যে কোনও ব্যক্তি যদি পেঁচার দৃষ্টি পান, তবে অনাকাঙ্খিত অর্থ পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এই বিষয়টিও মনে করা হয় যে, যদি পেঁচা কোনও রোগীর স্পর্শে আসে বা তার উপর থেকে উড়ে যায় তবে গুরুতর রোগও নিরাময় হয়ে যেতে পারে। ডানদিকে পেঁচার দর্শণ পাওয়া সব সময়ই অশুভ। অতএব, যখনই পেঁচার শব্দ শোনা যায়, তখন এটি একটি অশুভ ইঙ্গিত হিসাবে বিবেচিত হয়। তবে বামদিকে পেঁচার দর্শণ পাওয়া অত্যন্ত শুভ বলে মনে করা হয়।

আরও পড়ুন- পৌষ মাস বৃশ্চিক রাশির উপর কেমন প্রভাব পড়বে, দেখে নিন

এমনও রীতি প্রচলিত রয়েছে যে যদি পেঁচা কোনও বাড়ির ছাদে বসে বা ছাদে বসে শব্দ করে, তবে এটি বাড়ির সদস্যের মৃত্যুর ইঙ্গিত দেয়। যদি সকালে পেঁচা পূর্ব দিকের দিকে উপস্থিত হয় বা এর কণ্ঠস্বর শোনা যায় তবে বিশ্বাস করা হয় যে হঠাৎ ধন-সম্পদ বৃদ্ধি পাবে। যদি আপনি প্রায়শই আপনার চারপাশে পেঁচা দেখতে পান তবে আপনার বুঝতে হবে যে মা লক্ষ্মী আপনাকে কর্মে মুগ্ধ হয়েছেন এবং শীঘ্রই আপনার প্রতি সদয় হবেন।