পুরীর জগন্নাথ মন্দিরের প্রাচীণ ঐতিহ্যবাহী রথযাত্রা করোনার ফলে বন্ধ হতে বসেছিল। রথযাত্রার স্থগিতাদেশ পাওয়ার পর একজন সমাজসেবী সুপ্রিম কোর্টে রিভিউ পিটিশন দায়ের করেছিলেন। তাতে বলা হয়েছিল যে, রথযাত্রা বের করার বিষয়ে আদালতের পুনরায় চিন্তা করা উচিত। রথযাত্রা বন্ধ না করে কিছু নিয়ম পালনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানিক রীতি পালন করা যেতে পারে। শ্রীজগন্নাথ রথযাত্রার প্রাচীণ ঐতিহ্য বন্ধ হওয়ার থেকে রক্ষা পাবে। আজ এই আবেদনের শুনানিতে শর্তসাপেক্ষে পুরীর রথযাত্রা উৎসবের অনুমতি দিল সুপ্রিম কোর্ট।

এই বিষয়ে ওড়িশার সিএম নবীন পট্টনায়েক আজ রবিবার বিকেল ৫ টায় ভুবনেশ্বরে রথযাত্রার প্রস্তুতি সভায় সভাপতিত্ব করবেন। করোনার ভাইরাসের ফলে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার কারণে ২৩ শে জুন জগন্নাথ রথযাত্রাকে নিষিদ্ধ করেছিল সুপ্রিম কোর্ট। কারণ মন্দিরে ১১৭২ জন সেবায়েত রয়েছেন। পাশাপাশি তিনটি রথ সাজাতে প্রয়োজন হয় ৭৫০ জন লোকের প্রয়োজন। যদিও তাঁদের সবার কোভিড -১৯ পরীক্ষা করা হয়েছে এবং রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। 

 

অনুমতি পেলেও আদালতের তরফ থেকে জানানো হয়েছে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত কোনও বিধির সঙ্গে আপস করা যাবে না। মন্দির কমিটি, রাজ্য সরকার এবং কেন্দ্রের সমন্বয়ের ভিত্তিতে রথের আয়োজন করা যাবে বলে স্পষ্ট জানিয়েছে শীর্ষ আদালত।