চাণক্য দেশের অন্যতম পণ্ডিত হিসেবে বিবেচিত তিনি। যে চাণক্যের বর্ণিত নীতি অনুসরণ করে, তিনি জীবনে সাফল্য অর্জন করেন। চাণক্য সম্পর্কে সকলেই জানেন যে তিনি একজন যোগ্য শিক্ষক ছিলেন। চাণক্য বিশ্বখ্যাত তক্ষশিলা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের শিক্ষা দিতেন। বিশেষ কথাটি হ'ল চাণক্য নিজেই এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র এবং পরে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক হয়েছিলেন। চাণক্যের মতে, যদি জীবনে সফল হতে হয় তবে ব্যক্তির মধ্যে ৩ টি জিনিস থাকা খুব জরুরি। এই তিনটি জিনিস জীবনে সম্পদ, সম্মান এবং আত্মবিশ্বাস বাড়ায়

সাহসীকতা- জীবনে সফল হওয়ার জন্য একজন ব্যক্তির সাহসী হওয়া খুব জরুরি। চাণক্যের মতে, যার সাহস নেই সে জীবনে কখনও সফল হয় না। সাহস একজন ব্যক্তির সফল হওয়ার জন্য অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। সাহসী ব্যক্তি শীঘ্রই তার লক্ষ্যগুলি অর্জন করে। সাহসী ব্যক্তি সর্বদা প্রতিটি পরিস্থিতির মোকাবেলা করতে প্রস্তুত থাকে। সাহসী ব্যক্তি কোনও কাজ শুরু করতে সময় নেয় না।

কঠোর পরিশ্রম- কঠোর পরিশ্রমী সাফল্যের অন্যতম চাবিকাঠি। পরিশ্রমী মানুষ সাফল্য অর্জন করে। পরিশ্রম সাফল্যের সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। যে ব্যক্তি কঠোর পরিশ্রমকে ভয় পায় এবং সর্বদা সাফল্যের প্রত্যাশাও করে, এ জাতীয় লোকের কখনই সফল হয় না। সাফল্যের সঙ্গে কঠোর পরিশ্রম জড়িত। সুতরাং কঠোর পরিশ্রম ছাড়া সাফল্য পাওয়া সম্ভব নয়।

শৃঙ্খলা- জীবনে সাফল্য কেবল সেই ব্যক্তির হাতে আসে যে শৃঙ্খলাপরায়ণ। যদি কোনও ব্যক্তি শৃঙ্খলাবদ্ধ না হয় এবং তার কাজ করার ক্ষেত্রে শৃঙ্খলার অভাব হয়, সেই সমস্ত ব্যক্তি সাফল্য থেকে দূরে থাকেন। সুশৃঙ্খল জীবনযাত্রা অবলম্বন না করে সাফল্য অর্জন করা কঠিন। একজন সফল ব্যক্তির বৃহত্তম শক্তি হ'ল শৃঙ্খলা। শৃঙ্খলাবোধ ব্যক্তির আত্মবিশ্বাস বাড়ায়। যার সাহস, কঠোর পরিশ্রম এবং শৃঙ্খলা থাকে সে লক্ষ্মীর আশীর্বাদ লাভ করেন। এ জাতীয় মানুষ সমাজে সম্মান পান।