হাতের রেখা দেখে যেমন জ্যোতিষশাস্ত্র কোনও ব্যক্তির ভবিষ্যৎ সম্বন্ধে অনুমান করতে পারে। ঠিক একই রকম ভাবে মানুষের হাতের আঙ্গুলের ফাঁক দেখে ধারনা করা যায় কোন মানুষ কেমন। জ্য়োতিষশাস্ত্র মতে, হাতের আঙ্গুলের মাঝের ফাঁক দেখেই সেই ব্যক্তি সম্বন্ধে ধারনা করা সম্ভব। জেনে নিন কীভাবে। এর জন্য প্রথমেই আপনাকে জানতে হবে কোন আঙ্গুলে কোন গ্রহের প্রভাব থাকে। কনিষ্ঠ বা কড়ে আঙ্গুলে থাকে বুধের প্রভাব। অনামিকা বা রিং ফিঙ্গারে থাকে সূর্যের প্রভাব। মধ্যমায় থাকে শনির প্রভাব। তর্জনীতে থাকে গুরুর প্রভাব। এতো গেল আঙ্গুলে গ্রহের প্রভাব এবার জেনে নেব কীভাবে আঙ্গুলে ফাঁক দেখে ব্যক্তির সম্বন্ধে জানা যায়।

আরও পড়ুন- কার্তিক মাসে বজায় রাখুন সৌভাগ্য, শুধু নিয়ম করে সঙ্গে রাখুন এই জিনিসগুলি

কোনও ব্যক্তির মধ্যমা ও অনামিকার মধ্যে দূরত্ব থাকলে সেই ব্যক্তি বেপরোয়া ও অসভ্য স্বভাবের হয়ে থাকেন। যদিও এই দুই আঙ্গুলের মধ্যে দূরত্ব খুব একটা দেখা যায় না।  এই দুই আঙ্গুলের মধ্যে দূরত্ব না থাকাটাই শুভ। কোনও ব্যক্তির তর্জনী ও মধ্যমার মধ্যে বেশি দূরত্ব থাকলে সেই ব্যক্তি স্বার্থপর হন। যদি কম ফাঁক থাকে, তাহল সেই ব্যক্তি নিজের কথা খুব সহজেই বলে ফেলেন কোনও চিন্তা ভাবনা করেন না। আর এই দুই আঙ্গুলের মধ্যে ফাঁক বেশ কম হলে সেই ব্যক্তি অন্তর্মুখী হন।

আরও পড়ুন- এই অভ্যাসগুলিই একজন মানুষকে দারিদ্র্যতার দিকে ঠেলে দেয়, চাণক্য নীতি

কোনও ব্যক্তির আঙ্গুলে অনামিকা ও কড়ে আঙ্গুলের মধ্যে যদি বেশি দূরত্ব থাকে তবে তা শুভ বলে ধরা হয়। আর যদি কম দূরত্ব থাকে তবে সেই ব্যক্তি নিষ্ঠুর এবং বেশিরভাগ সময় ঝুট-ঝামেলায় জড়িয়ে থাকেন। সর্বোপরি এই সমস্ত বিষয়গুলি অনুমানের উপর নির্ভরশীল। এর কোনও বাস্তব যৌক্তিকতা নেই। একজন মানুষের স্বভাব কেমন হবে তা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই নির্ভর করে ব্যক্তি বিশেষে।