রাশিতত্ত্বের নিউমারলজি বা সংখ্যাতত্ব অনুযায়ী, আপনার জন্ম তারিখ শুধু একটি সংখ্যাই নয়, আপনার জীবনে এই সংখ্যার রয়েছে গভীর তাৎপর্য। এই জন্ম তারিখ ব্যবহার করে তার ব্যক্তিত্ব নির্ণয় করা যায় সহজেই। এই পদ্ধতিটি বেশ সহজ। কারও জন্মদিন ১ তারিখ হলে আপনার সংখ্যাও ১ হবে। কারও জন্ম তারিখ ২৬ হলে। তার সংখ্যা হবে (২+৬)= ৮। কারও জন্ম তারিখ যদি ১০ হয়, তবে তার জন্ম সংখ্যা হবে (১+০)=১। তবে যদি কারও জন্মদিন হয় ২৯ তবে সংখ্যা হবে (২+৯)= ১১ হবে। এবার এই ১১ কে আবারও যোগ করে (১+১)=২ হবে। 
যে কোনও ব্যক্তির নিউমরোলজিক্যাল তালিকায় জন্ম তারিখ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। জেনে নিন আপনার জন্ম সংখ্যাটি যদি ২ হয়ে থাকে, তবে দেখে নিন সারা জীবন এই সংখ্যাটি আপনার জীবনে কী প্রভাব ফেলবে তা জেনে নেওয়া যাক-

  • এরা ভীষণ আবেগপ্রবণ হয় তাই সহজেই কষ্ট পায়। তবে মাঝে মাঝেই এরা খুব মানসিক সমস্যায় ভোগে। ডিপ্রেশন ও কনফিডেন্সের অভাব দেখা যায় এদের মধ্যে। 
  • এরা খুব শান্তিপ্রিয়, তাই সব সময় শান্তি বজায় রেখে চলতেই পছন্দ করেন।
  • এরা খুব দয়ালু প্রকৃতির হন, সেই সঙ্গে এদের স্বভাবও খুব কোমল হয়।
  • অনেক ক্ষেত্রে এরা কল্পনাপ্রবণ আবার কখনও কখনও কঠোর বাস্তববাদী।
  • অন্যরা কী বলতে চাইছে তা এরা খুব সহজেই অনুমান করতে পারে।
  • আবার অন্যদের মন ভালো বুঝতে পারে বলে অন্যদের সঙ্গে এরা সহজেই মানিয়ে চলতে পারে।
  • এরা খুব ঘুরতে ভালোবাসে কেননা এরা পরিবর্তন পছন্দ করে।