প্রতিটি মানুষের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য যেমন আলাদা হয় প্রতিটি মানুষের পছন্দও হয় আলাদা আলাদা। আবার জ্যোতিষশাস্ত্রের মতে প্রতিটি রাশির চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যও আলাদা হয়। সে রকমভাবেই সম্পর্ক ভেঙ্গে গেলে বা ব্রেকআপ হলে ব্যক্তি অনুযায়ী তাদের প্রতিক্রিয়া দেখা যায়। জ্যোতিষশাস্ত্র মতে, রাশি অনুযায়ী সম্পর্ক ভেঙ্গে গেলে কোন রাশির কেমন প্রতিক্রিয়া হবে তা জেনে নেওয়া যাক।

মেষ রাশির ব্যক্তিত্বরা ভাল করে জীবন সাজিয়ে গুছিয়ে নেন।  ব্রেকআপ বা  বিচ্ছেদে তেমন কোনও প্রভাব পড়ে না।  

বৃষ রাশি ব্রেকআপ হলে এরা বাইরে থেকে তা একদমই প্রকাশ করে না নিজেরা ভিতর ভিতর গুমরে থাকে। রা বিপরীত লিঙ্গের মন সহজেই জয় করতে পারে। 

মিথুন রাশি মাঝে মাঝে মানসিক বিপর্যস্তও হয়ে পরেন। সম্পর্ক ভেঙে গেলে খুব অবসাদে ভোগেন। এরা বুঝতে পারেন না ঠিক কী করবেন। রাগে ক্ষোভে ফেটে পড়েন। 

কর্কট রাশি এদের মানসিক চাপের থেকেও আত্মসম্মানে বেশি আঘাত করে। এরা আবেগপ্রবণ  ফলে বিচ্ছেদ এরা ভেঙে পড়েন ভিতর থেকে। তবে পাশাপাশি এঁরা এটাও জানে এইভাবে সারা জীবন চলবে না। তাই ধীরে ধীরে আবারও স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসেন।
 
সিংহ রাশি ব্রেকআপ হলে এঁরা নানা রকমের কান্ড ঘটিয়ে থাকেন। সঙ্গীকে এরা খুব বেশি নিজের ভাবতে শুরু করেন তাই এঁদের ব্রেকআপ মেনে নিতে খুব সমস্যা হয়।
  
কন্যা রাশিও মনে মনে প্রাক্তনের জন্য ক্ষোভ তৈরি হয়। কোনও একটি বিষয়ে অত্যন্ত বেশি ভাবেন। বাইরে থেকে দেখে কিছু বোঝা য়ায় না।

তুলা রাশি এরা বাস্তববাদী। ব্রেক আপের পরে খুব একটা কষ্ট পান না। এরা জানেন জীবনে প্রেম আসবেই তাই তাড়াতাড়ি মুভ অন করাই ভালো। 

বৃশ্চিক রাশি মুখে কিছু বলেন না চুপচাপে সঙ্গীর কীভাবে মুভ অন করছেন, তার উপর নজর রাখেন। অন্যান্য রাশির মতো প্রতিক্রিয়া না করলেও ভিতর থেকে যন্ত্রণার মধ্যে থাকেন।

ধনু রাশির ব্রেক-আপের পরে পরবর্তী সম্পর্কে যেতেও এদের বেশি সময় লাগে না।  এরা সামান্য প্রতিক্রিয়া দিলেও এরা পরে ভ্রমণে বেরিয়ে পড়েন। 

মকর রাশির বিচ্ছেদের পর নিজেকে আরও শক্তিশালী করে তোলেন। এরা ভিতর থেকে ভেঙে পড়লেও মুখে কিছু বলেন না। 

কুম্ভ রাশি হাসিখুশি থাকতে বেশি পছন্দ করেন। এঁরা নিজেদের মনের কথা ঠিকঠাক প্রকাশ করতে পারেন না। কিছুদিন কেটে যাওয়ার পের বুঝতে পারেন কী হারিয়েছেন।
  
মীন রাশি অত্যন্ত আবেগপ্রবণ। প্রাক্তন হিসেবে ব্রেক-আপের পরেও এরা সঙ্গীর খারাপ ব্যবহার করার কথা ভাবেন না। এরা আজীবন মনে রাখে