চাণক্য নীতিতে বলা হয়েছে যে কোনও ব্যক্তিকে চিহ্নিত করার ক্ষেত্রে কখনও প্রতারিত হওয়া উচিত নয়। যে ব্যক্তি কোনও ব্যক্তিকে পরীক্ষা করার ক্ষমতা রাখে সে জীবনে কখনোই ব্যর্থ হয় না। এই ধরনের লোকদের প্রতারণা করাও কঠিন। চাণক্যের মতে, একজন ব্যক্তি তখনই প্রতারণা করে, যখন সে তার চারপাশের মানুষকে বোঝার ক্ষেত্রে ভুল করে।

 একজন ব্যক্তি অর্থের ক্ষতি সহ্য করতে পারে তবে যখন কোনও নিকটবর্তী ব্যক্তি প্রতারণা করে তখন ব্যক্তিটি ভেঙে পড়েন। এমন পরিস্থিতিতে নিজেকে পরিচালনা করা খুব কঠিন। সুতরাং, মানুষের পরীক্ষা করার ক্ষেত্রে কখনও ভুল করা উচিত নয়। কীভাবে কোনও মানুষকে চিনতে হবে সে সম্পর্কে চাণক্য কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় জানিয়েছেন। এই জিনিসগুলি জানার পরে, এই সমস্যাটি এড়ানো যায়।

আরও পড়ুন- কার্তিক মাস কেমন প্রভাব ফেলবে মিথুন রাশির উপর, দেখে নিন

চাণক্য নীতি বলে যে, স্বার্থপর ব্যক্তির থেকে সর্বদা দূরে থাকুন। একজন স্বার্থপর ব্যক্তি কেবল নিজের কাজ দেখেন এবং সময় এলে যে কাউকে প্রতারণা করতে পারেন। এই জাতীয় লোকদের জন্য সব কিছুই উপকারী। একজন স্বার্থপর ব্যক্তি কঠোর হৃদয়ের হয় এবং সময় এলে মারাত্মক ক্ষতিকর হয়ে উঠতে পারে। অতএব, স্বার্থপর ব্যক্তির থেকে সাবধান হওয়া উচিত। স্বার্থপর ব্যক্তি তার স্বার্থপরতা পূরণের জন্য সর্বদা সামনের ব্যক্তির প্রশংসা করবে। অন্যায় কাজ দেখলেও কখনোই সেই ভুল শুধরে দেওয়ার চেষ্টা করবে মনা। পাশাপাশি অন্য মানুষের নামে মিথ্যে কথা বলে শত্রুতা তৈরির চেষ্ট করে।

চাণক্যের মতে, সহৃদয় ব্যক্তি তিনিই যিনি হৃদয় থেকে বন্ধুত্ব করেন। যে ব্যক্তির পদমর্যাদা এবং সম্পদ দেখে বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দেয়, তার সম্পর্কে সর্বদা সতর্ক থাকুন। এই জাতীয় লোকেরা কেবল অবস্থান ও খ্যাতি মাথায় রেখেই নৈকট্য বাড়ায়। সকলেই জানেন যে মর্যাদা এবং প্রতিপত্তি কখনই স্থায়ী হয় না। এই কারণেই এই জিনিসগুলি এই জিনিসগুলি যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে একটি দূরত্ব তৈরি করে। সুতরাং, এই জাতীয় লোকদের কখনই কাছে আসতে দেওয়া উচিত নয়। তাই ধরণের মানুষের থেকে দূরত্ব বজায় রাখা প্রয়োজন।