রবিবার বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন জানিয়েছেন, ভারতে অবৈধভাবে বসবাসকারী বাংলাদেশী নাগরিকদের ফিরিয়ে নেওয়া হবে বাংলাদেশে। আপাতভাবে দেখলে এতে করে ভারতের বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারীদের সমস্যা সমাধানের পথ সুগম হল। কিন্তু, বাংলাদেশি বিদেশমন্ত্রী এই বিষয়ে একটি শর্ত চাপিয়েছেন, ভারতকে অবৈধ বাংলাদেশী বসবাসকারীদের নামের তালিকা দিতে হবে।  

দিন দুয়েক আগেই মোমেন-এর ভারতসফর বাতিল নিয়ে হইচই হয়েছে। মোমেন বারবার দাবি করেছেন, ব্যস্ত কর্মসূচির জন্যই তাঁকে ভারত সফর বাতিল করতে হয়েছে। কিন্তু, বেসরকারি সূত্রের দাবি ভারতের সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন পাসের প্রতিবাদেই তিনি সফর বাতিল করেছেন। রবিবার ভারতের নাগরিকপঞ্জী নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান, ভারত যদি বাংলাদেশ সরকারকে অবৈধভাবে বসবাসকারী বাংলাদেশি নাগরিকদের নামের তালিকা দিতে পারে, তাহলে বাংলাদেশ সরকার তাদেরকে দেশে ফিরিয়ে নেবে।

গত প্রায় একমাস ধরে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত এলাকা থেকে বাংলাদেশে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশ করতে গিয়ে প্রায় পাঁচশো লোক ধরা পড়েছেন। এঁরা সকলেই ভারত থেকে পালিয়ে যাওয়া বাংলাদেশি নাগরিক বলে সূত্রের দাবি। কিন্তু, বাংলাদেশি বিদেশমন্ত্রী এই এই ধৃতদের বাংলাদেশী নাগরিক বলে মানতে নারাজ। তাঁর দাবি এঁরা সকলেই ভারতীয় নাগরিক। অর্থনৈতিক চাপে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করেছিলেন। তাঁদের সকলকেই ভারতে ফেরত পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন মোমেন।   

তিনি আরও বলেন, ভারতে যদি কোনও বাংলাদেশি অবৈধভাবে বসবাস করেন, তাহলে তাদের নামের তালিকা পাঠানোর জন্য নয়াদিল্লির কাছে ইতিমধ্যেই অনুরোধ জানিয়েছে  ঢাকা। তবে সমস্যা হল, ভারতে অবৈধভাবে বসবাসকারী বাংলাদেশিদের অধিকাংশরই বাংলাদেশি নাগরিকত্বের প্রমাণ নেই। মোমেনের কথায় স্পষ্ট, বাংলাদেশি হিসেবে ভারত প্রমাণ না দিতে পারলে অনুপ্রবেশকারীদের ফিরিয়ে নেবে না বাংলাদেশ।