বিধানসভা নির্বাচন ২০২১ এ ফের শিক্ষামন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন ব্রাত্য বসু। ব্রাত্য বসুর মুকুটে নয়া পালক। নেপাল আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে সেরা ফিচার ফিল্ম হিসেবে গৌতম বুদ্ধ পুরস্কার জিতেছে পরিচালকের ডিকশনারি। ফের ভক্তদের জন্য খুশির খবর নিয়ে হাজির ব্রাত্য বসু। পলিটিক্যাল থ্রিলার নিয়ে হাজির হচ্ছেন ব্রাত্য বসু, তাও আবার যেমন তেমন থ্রিলার নয়, সত্য ঘটনা অবলম্বনে।

 আরও পড়ুন-'স্তন না থাকলেও অনাবৃত শরীর দেখানো যাবে না', কেন আরিয়ানকে খালি গায়ে ঘরে থাকতে দেন না শাহরুখ...

হুব্বা শ্যামল, অনেকেই তাকে হুগলির দাউদ বলেও চেনেন। এবার সেই হুব্বা শ্য়ামলের শিহরণ জাগানো কাহিনিই রূপোলি পর্দায় নিয়ে আসছেন ব্রাত্য বসু। কে এই হুব্বা শ্যামল। নব্বইয়ের দশকের শেষ দিকেই এই গ্যাংস্টারের আর্বিভাব। হুগলি জেলার অন্ধকার জগতের গ্যাংস্টার ছিলেন হুব্বা শ্যামল। খুন থেকে ড্রাগ পাচার, অপহরণ সহ একাধিক মামলা ছিল তার বিরুদ্ধে। একবার নয়, তিনবার গ্রেফতার হয়েও জামিনে ছাড়া পায় এই দাগী আসামি। তার মোবাইল ফোনের সংখ্যা শুনলে চোখ কপালে উঠবে। ৭০ টা মোবাইল ফোন কুচক্র চালাতেন শ্যামল।

 

 

অন্ধকার জগতেই রাজ নয় তার, ২০০৯ সালে কুখ্যাত এই ডন লোকসভা নির্বাচনে স্বাধীনভাবে ভোটেও দাঁড়িয়েছিল। যার ফলে বিপাকে পড়েছিল শাসকদল।  পরবর্তীতে মনোনয়ন প্রত্যাহারও করে নেয় শ্যামল। তারপর থেকে বেশ কিছুদিন নিখোঁজ ছিল হুগলির এই ডন। তারপর বৈদ্যবাটির খালে পচাগলা অবস্থায় ভেঁসে ওঠে হুব্বা শ্যামলের দেহ। শোনা যায় গুলিবিদ্ধ হয়েই মৃত্য হয়েছিল তার। এবার ব্রাত্য বসুর ছবিতেই শ্যামলের কাহিনি ফুটে উঠতে চলেছে। ক্রাইম ও কমেডির সংমিশেল থাকতে চলেছে এই ছবিতে। ছবিতে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করতে চলেছেন বাংলাদেশি অভিনেতা মোশারফ করিম। ডিকশনারি ছবিতে দেখা গিয়েছে মোশারফকে, তার অভিনয়ও প্রশংসা কুড়িয়েছে সমালোচক মহলে। ইতিমধ্যেই ছবির প্রি-প্রোডাকশনের কাজ শুরুও করে দিয়েছেন ব্রাত্য বসু। কবে মুক্তি পাচ্ছে এই ছবি তা জানা যায়নি।