মহালয়ার আর মাত্র কয়েকদিন। পুজো আসার আগে এই দিনটি আপামর বাঙালির কাছে অত্যন্ত আবেগের। রেডিওতে মহালয়া শোনার আবেগ যতখানি, তেমনই টিভির পর্দাতেও মহালয়া দেখতে ভালবাসে আট থেকে আশি। পুজোর আগেই মিমি চক্রবর্তরী নিচ্ছেন বিশেষ প্রস্তুতি। সেই প্রস্তুতির সঙঅগে যোগাযোগ রয়েছে একটি ডিসঅর্ডারের। তেমন সিরিয়াস কিছুই নয়। মিমি একটি বাড়ি পরিষ্কার করার ভিডিও পোস্ট করেছিলেন। যেখানে একটি উইন্ডচাইম পরিষ্কার করছেন তিনি। 

ক্যাপশনে লিখেছেন, অবসেসিভ কমপালসিভ ডিসঅর্ডার। অতিরিক্ত পরিষ্কার থাকার একটি ডিসঅর্ডারকে বলে অবসেসিভ কমপালসিভ ডিসঅর্ডার। যা মিমির রয়েছে। এবং সেই ডিসঅর্ডারের জেরে প্রতিটি জিনিস নিখুঁতভাবে পরিষ্কার করছেন তিনি। ভিডিও দেখে সকলেই লিখেছেন তাদেরও একই অবস্থা। প্রসঙ্গত, মহিষাসুরমর্দিনী রূপে দেখা যাবে মিমিকে। সম্প্রতি তাঁর ছবি ভাইরাল হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। যদিও তাঁকে প্রথমদিকে অনেকেই ট্রোল করেছিলেব এই বলে যে তাঁকে মহিষাসুরমর্দিনী অবতারে একেবারেই মানায়নি। তবে ধীরে ধীরে বদলাচ্ছে সেই মনোভাব। 

 

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

OCD 🥴 OBSSESIVE COMPULSIVE DISORDER Although i enjoy 😉

A post shared by Mimi (@mimichakraborty) on Sep 10, 2020 at 9:09am PDT

 

যত সময় এগিয়ে আসছে ততই মিমিকে দূর্গারূপে দেখতে প্রস্তুত নেটবাসী। দর্শকমহলে ক্রমশ বাড়ছে উত্তেজনা। সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া প্রোমোতে মুগ্ধ করেছেন মিমি। প্রসঙ্গত মিমি পুজোর প্রস্তুতি নেওয়া শুরু করে দিয়েছেন। সদ্য ঘুরে এসেছেন কুমোরটুলি থেকে। যতই করোনার পরিস্থিতিতে সকলের দিনরাত বদলে যাক না কেন বাঙালির কাছে পুজোই আগে। করোনা আবহে শুরু হয়ে গিয়েছে প্রস্তুতি। খুঁটিপুজো হয়ে গিয়েছিল বহু জায়গায়। এবার প্যান্ডেল বাঁধা কাজও শুরু হয়ে গিয়েছে পাড়ায় পাড়ায়। 

এগুলি দেখলেই বাঙালির মন ভরে যায় আনন্দে। তবে একটি জায়গায় গেলেই আপামর বাঙালির চোখে জল চলে আসে। সেই জায়গায় গিয়ে পৌঁছে গিয়েছিলেন মিমি। সকালের কফিতে চুমুক দিয়ে ছুঁটেছিলেন কুমোরটুলিতে। সেই ছবি পোস্ট করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।  মিমির পোস্টে মন ভরল সকল বাঙালি নেটিজেনের। প্রসঙ্গত অভিনেতার আগামী ছবি 'এসওএস কলকাতা'র শ্যুটিংয়ের অন্দরমহলের ঝলক পাওয়ার জন্য উৎসাহী ছিল দর্শকমহল। সেই ঝলক ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়।